নতুন খবরভারতবর্ষ

দেশে এই প্রথমবার চলবে র‌্যাপিড রেল ! দিল্লী থেকে মেরঠ পৌঁছানো যাবে মাত্র ১ ঘন্টায়।

দেশের সবথেকে বড়ো রাজ্য উত্তরপ্রদেশকে নিয়ে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার বড়ো পরিকল্পনা করে রেখেছে তা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ উত্তরপ্রদেশে রাম রাজত্ব গড়ার কথা বলেছিলেন। এখন সেই দিকেই এগিয়ে চলছে উত্তরপ্রদেশ। প্রথমত জানিয়ে দি, রাম রাজত্ব কথার অর্থ হলো যেখানে সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি তিনটি উপস্থিত থাকবে। ২০২৪ সালের মধ্যে যোগী আদিত্যনাথের সরকার উত্তরপ্রদেশকে ১ ট্রিলিয়ন ডলার ইকোনমি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যার কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

মাত্র কিছুদিন আগেই অযোধ্যা ইস্যুতে আদালতের রায় সামনে চলে এসেছে। ফলস্বরূপ অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ এর প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গেছে। অযোধ্যাকে উত্তর ভারতের ধর্ম নগরী করার উপর কাজ শুরু করেছে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকার। রাজ্যে নতুন করে ৬ টি শহরে মেট্রো রেল চালানোর ঘোষণাও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এখন আর একটা খবর উত্তরপ্রদেশ থেকে সামনে আসছে। খবর অনুযায়ী, দিল্লি-গাজিয়াবাদ এবং মীরাটের মধ্যে ৮২ কিলোমিটার দীর্ঘ করিডোরে ( Regional Rapid Transit System) রেল চলাচল শুরু হওয়ার কথা ২০২৩ থেকে নির্ধারিত হয়েছে।

এই করিডোরের সাহিদাবাদ ও দুহাইয়ের মধ্যে 17 কিলোমিটার দীর্ঘ রুটেরও নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ইউপি দেশের প্রথম রাজ্য হবে যেখানে র‌্যাপিড রেল ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম (আরআরটিএস) পরিষেবা শুরু হবে।
প্রায় 30 হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এই করিডোরটিতে 24 টি স্টেশন থাকবে, যা উভয়ই ভূগর্ভস্থ এবং উন্নত হবে। করিডোরটি দিল্লির সরাই কালে খান স্টেশন থেকে শুরু হয়ে মেরঠ এর মোদীপুরমে যাবে।

এই করিডোরটি যমুনা এবং হিনডন নদী পথে পাড়ি দেবে। দিল্লি থেকে মেরুতের দূরত্ব এক ঘণ্টার মধ্যে সম্পূর্ণ করা যাবে। ৮ লক্ষাধিক যাত্রী এই রুটটি প্রতিদিন ব্যবহার করার কথা বলে জানা গেছে। করিডোরটি এমনভাবে তৈরি করা হবে যাতে ট্রেনগুলি প্রতি ঘন্টায় 180 কিলোমিটার গতিতে চলতে পারে, তবে পরীক্ষামূলক ট্রেনগুলি প্রতি ঘন্টা 160 কিলোমিটার অনুযায়ী পরিচালিত হবে। করিডরে চলাচলকারী ট্রেনগুলিতে মহিলাদের জন্য পৃথক কোচের ব্যবস্থা করা হবে, পাশাপাশি ট্রেনটিতে একটি বিজনেস ক্লাসের কোচও স্থাপন করা হবে, যেখানে যাত্রীরা বেশি অর্থ ব্যয় করে আরামদায়ক ভ্রমণ উপভোগ করতে পারবেন।

Back to top button
Close