নতুন খবরভারতবর্ষ

বীর সাভারকারকে সন্মান দিতে বড়ো ঘোষণা দিল্লী ইউনিভার্সিটির! কোনঠাসা সাভারকার বিরোধীরা

বিনায়ক দামোদর সাভারকার কে দেশবাসী তার স্বাধীনতা সংগ্রামে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ‘বীর সাভারকার’ নামে অভিহিত করেছেন। “নাসিক ষড়যন্ত্র” মামলায় তাঁকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তিনি কখনও আন্দামানের সেলুলার জেল, আবার কখন‌ও মহারাষ্ট্রের রত্নগিরি জেল বা কখনো গৃহবন্দি অবস্থায় মোট ২৭ বছর বন্দী ছিলেন। তিনি জ্যোতি বসু, জহরলাল নেহেরুর মতোই ব্যারিস্টার ছিলেন। এমনকি তিনি ‘মিত্রমেলা’ এবং পরবর্তীকালে ‘অভিনব ভারত’ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে তাঁর অসাধারণ সাংগঠনিক দক্ষতার পরিচয় তুলে ধরেন অর্থাৎ এদের মতো মুখ্যমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার হওয়া সত্বেও তিনি আজন্ম দেশপ্রেমিক হিসেবে রয়ে গেছেন। তাঁর কাছে মানবসেবায় ছিল সর্বাগ্রে, কোন‌ও মন্ত্রীত্ব নয়।

অবশেষে বীর সাভারকরের নামে কলেজ খোলার প্রস্তাবে ছাড়পত্র দিয়েছে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল। DU সূত্রে খবর, বিশ্ববিদ্যালয় অধীনস্থ দুটি নতুন কলেজ খোলা হবে। যার মধ্যে একটির নাম হবে বিপ্লবী বিনায়ক দামোদর সাভারকরের নামে। অপরটির নাম হবে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর নামে। এর পাশাপাশি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এবং অরুণ জেটলির নামেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনের নামকরণ করা হবে বলে জানা গিয়েছে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, দিল্লির প্রথম মুখ্যমন্ত্রী চৌধুরী ব্রহ্মপ্রকাশ, দেশের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল ও জ্যোতিবা বাই ফুলের নামেও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনের নাম দেওয়া হবে।

দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর পি সি যোশী এ বিষয়ে জানিয়েছেন, এনারা প্রত্যেকেই সমাজে তাঁদের অবিস্মরণীয় অবদান রেখে গেছেন। তাই এনাদের কথা মাথায় রেখেই নয়া নামকরণ করা হয়েছে। নিয়ম মেনেই এই নামগুলিকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। নতুন দুটি কলেজের পাশাপাশি চারটি নতুন সংবর্ধনা ভবনও তৈরি করা হবে। এর মধ্যে দুটি তৈরি হবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে। আর বাকি দুটি বাইরে।

Related Articles

Back to top button