আন্তর্জাতিকনতুন খবর

ওলির চাপ বাড়িয়ে নেপালে হিন্দুরাষ্ট্র ও রাজতন্ত্র ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি নিয়ে রাস্তায় নামল কয়েক হাজারি মানুষ

নয়া দিল্লীঃ নেপালে (Nepal) প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির (KP Sharma Oli) সমস্যা আর কম হওয়ার নাম নিচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী ওলির দলের কার্যকারী সভাপতি পুষ্প কমল দহল প্রচণ্ডের সাথে বিদ্রোহ এখনও শেষ হয়নি। শুধু তাই নয়, নেপালের অনেক জায়গায় চীন দ্বারা জমিতে কবজা করার রিপোর্টও সামনে এসেছে। আর ওলি নিজের চীন প্রেমের জন্য সবার নিশানায় আসছেন। এমনকি সেখানকার জনতাও এখন সরকারের উপর আর ভরসা রাখতে পারছে না। আর সেই কারণে নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে শনিবার হাজার হাজার মানুষ রাজতন্ত্র আর হিন্দু রাষ্ট্র ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে আন্দোলন করেন।

শুধু কাঠমান্ডুই নয়, নেপালের অনেক শহরেই প্রজাতন্ত্র রদ করে রাজতন্ত্র আর হিন্দু রাষ্ট্র ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে নেপালের জনতা বিক্ষোভ দেখায়। নেপাল ২০১৫ সালে নতুন সংবিধান আপন করে আর নেপালে কমিউনিস্ট পার্টির নেতা কেপি শর্মা ওলি প্রধানমন্ত্রী হন। ২০১৭ এর নির্বাচনে আবারও কমিউনিস্ট পার্টি ক্ষমতায় আসে। কমিউনিস্ট পার্টির শাসনকালেই নেপাল কে হিন্দুরাষ্ট্র থেকে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়। এবার নেপালের জনতা সরকারের প্রতি এতটাই হতাশ হয়ে উঠেছে যে, তাঁরা আবার দেশে রাজতন্ত্র এবং হিন্দু রাষ্ট্রের দাবি জানাচ্ছে।

কয়েকবছর আগে পর্যন্ত নেপাল বিশ্বের একমাত্র হিন্দু রাষ্ট্র ছিল। ২০০৮ সালে ২৪০ বছরের রাজতন্ত্রের অবসান ঘটিয়ে নেপাল প্রজাতান্ত্রিক দেশ হয়। ২০১৫ সালের নেপাল নতুন সংবিধান আপন করে নেয়। এরপর সেখানে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে কমিউনিস্ট পার্টি ক্ষমতায় আসে। কিন্তু ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী কোনও প্রতিশ্রুতিই পালন করেন নি বলে দেশের মানুষের অভিযোগ।

উল্টে প্রধানমন্ত্রী অত্যাধিক চীন প্রেমের কারণে ভারতের সাথে নেপালের সম্পর্কে ফাটল ধরেছে আর চীন একের পর এক নেপালের জমি অবাধে দখল করে গিয়েছে। এই কারণেই নেপালের জনতা এখন আর সরকারের উপর ভরসা রাখতে পারছে না। আর সেই জন্যই নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু সহ দেশের বিভিন্ন শহরে রাজতন্ত্র আর হিন্দু রাষ্ট্র ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিতে নেপালিরা বিক্ষোভ দেখায়।

Related Articles

Back to top button