Press "Enter" to skip to content

উদ্ধব ঠাকরে আর ফড়নবিশের মধ্য গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক, মহারাষ্ট্রে শুরু নতুন জল্পনা

শেয়ার করুন -

মুম্বাইঃ গোটা ভারতের (India) মধ্যে মহারাষ্ট্র করোনা ভাইরাসে সবথেকে বেশি প্রভাবিত। মহারাষ্ট্রে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ১ লক্ষ পার করেছে আগেই। আর এর মধ্যে মহারাষ্ট্রের (Maharashtra) মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে (Uddhav Thackeray) এবং বিরোধী দলের নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ (Devendra Fadnavis) এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হল। মহারাষ্ট্রে করোনার সঙ্কটের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে এবং বিরোধী দলের নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ এর মধ্যে হওয়া এই বৈঠককে বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলে মানা হচ্ছে। যদিও এই বৈঠকের পর মুখ্যমন্ত্রী এখনো পর্যন্ত কোন প্রতিক্রিয়া দেননি।

বৈঠকের পর দেবেন্দ্র ফড়নবিশ বলেন, মহারাষ্ট্র আর মুম্বাইতে করোনার পরীক্ষা করা হচ্ছে না। ৩৮ হাজার টেস্টিং ক্ষমতার পরেও মহারাষ্ট্রে দিনে মাত্র ১৪ হাজারের মতো পরীক্ষা হচ্ছে। মুম্বাইতেও ঠিক এমনই হচ্ছে, যদি পরীক্ষার সংখ্যা কম হয় তাহলে করোনার নতুন মামলাও কম করে দেখানো হবে।

মহারাষ্ট্রে পরীক্ষার মূল্য নিয়ে ফড়নবিশ বলেন, কেন্দ্রের কথা অনুযায়ী রাজ্যে টেস্টিং এর জন্য কম টাকা নেওয়া হচ্ছে। উনি বলেন, ICMR এর পরামর্শের পর পরীক্ষার দাম কমেছে। মহারাষ্ট্রে পরীক্ষার মূল্য অন্য রাজ্যের তুলনায় কম ছিল। এর সাথে সাথে ফড়নবিশ বলেন, সরকার ঘূর্ণিঝড় নিসর্গের পর ভূমিগত সমস্যার কথা জানে না। সরকারের তরফ থেকে ঘোষিত আর্থিক ক্ষতিও পর্যাপ্ত না।

মহারাষ্ট্রে এখন মোট করোনা রোগীর সংখ্যা হল ১ লক্ষ ১ হাজার ৪১। এমনকি গোটা দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্রেই করোনায় মৃতদের সংখ্যা সর্বাধিক। এখনো পর্যন্ত গোটা রাজ্যে ৩ হাজার ৭১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। এমনকি করোনার সংখ্যা চিনকে অনেক আগেই পার করে গেছে মহারাষ্ট্র।

আরেকদিকে রাজ্যের রাজধানী এবং বাণিজ্য নগরী হিসেবে পরিচিত মুম্বাইতেও করোনার প্রকোপ জারি আছে। শুধুমাত্র মুম্বাইতেই ৫০ হাজারের বেশি করোনা রোগী পাওয়া গেছে। মুম্বাইতে মোট মামলা ৫৫ হাজার ৪৫১ হয়েছে। শুধুমাত্র মুম্বাইতে এখনো পর্যন্ত ২ হাজার ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এই মারক ভাইরাসে।