নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

যেদিন সত্যি মারা শুরু করব, সেদিন ব্যান্ডেজ বাধার জায়গা পাবে না! তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলীপের

কলকাতাঃ চা চক্রে যোগ দিয়ে ফের তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাতে নিলেন দিলীপ ঘোষ। আজ সকালে বামনঘাটায় চায়ে পে চর্চা অনুষ্ঠানে যোগ দেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেখান থেকে তিনি তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘যেদিন সত্যি মারা শুরু করব, সেদিন ব্যান্ডেজ বাধার জায়গা পাবে না।” চা চক্রে যোগ দিয়ে এভাবেই তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ।

অমর্ত্য সেন আর বিশ্বভারতীর জমি বিতর্ক নিয়েও মন্তব্য করেন তিনি। দিলীপ ঘোষ বলেন, উনি যাদের হয়ে ব্যাট ধরেছেন তাঁদের হয়েই ব্যাট করুক। আমাদের কারোর সার্টিফিকেট লাগবে না। উনি মুখ্যমন্ত্রীর কথায় প্রভাবিত আর এটা সবার কাছেই দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার।” গতকাল কোচবিহারে তৃণমূল-বিজেপির অশান্তি নিয়ে দিলীপ বাবু বলেন, নির্বাচন জোট এগিয়ে আসছে তৃণমূল তত হিংস্র হয়ে উঠছে। ওঁরা জানে এবার আর ওঁরা ফিরবে না, তাই গায়ের জোরে ক্ষমতা দখল করতে চাইছে। ওঁরা পুলিশকে নপুংসক বানিয়ে রেখেছে।

দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যে হিংসা নতুন কিছু নয়। সেই সিদ্ধার্থ শঙ্করের আমল থেকে রাজ্যে হিংসার রাজনীতি চলে আসছে। কংগ্রেস, সিপিএম যা করেছে তৃণমূলও তাই করছে। কেন্দ্র থেকে টাকা পাঠানো হচ্ছে তৃণমূলের ভাইয়েরা সব খেয়ে নিচ্ছে। পাঁচ টাকায় আলু কিনে ৪৫ টাকা কেজিতে বিক্রি করছে দিদির ভাইয়েরা। তিনি বলেন, রাজ্যে আর পিসি ভাইপোর রাজনীতি চলবে না।

দিলীপ ঘোষ বলেন, আমার নামে ৪০ টা মামলা দিয়েছে ওঁরা। আমি একটা চড়ও মারিনি। বিজেপি করলেই কেস দিচ্ছে। আমরা যেদিন সত্যি মারা শুরু করব, সেদিন ওঁরা ব্যান্ডেজ বাধারও জায়গা পাবে না। তৃণমূল আমাদের পঞ্চায়েত ভোটে নোমিনেশনই করতে দেয়নি। বিডিওকে পর্যন্ত ঘিরে রেখেছিল ওঁরা। এরপর মুখ্যমন্ত্রী বলছেন বিজেপি ঝামেলা করছে। দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যের পরিস্থিতি এমন হয়ে গিয়েছে যে, এখন কালীঘাটে প্রণামি দিতে হয়।

Related Articles

Back to top button