Press "Enter" to skip to content

লাঠি হাতে কড়া রোদে কর্তব্য পালন করছেন পাঁচ মাসের গর্ভবতী DSP, নকশালদের সঙ্গে লড়ার রয়েছে কৃতিত্ব

শেয়ার করুন -

বিলাসপুরঃ ছত্তিসগড়ের পুলিশের ডিএসপি শিল্পা সাহু আজকাল শিরোনামে আছেন। ওনার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক হারে ভাইরাল হচ্ছে। ভিডিওতে শিল্পা সাহুকে হাতে লাঠি নিয়ে জনতাকে লকডাউন পালন করার জন্য বার্তা দিতে দেখা যাচ্ছে। সিভিল ড্রেসে শিল্পা সাহুর এই ভিডিওর সবথেকে অবাক করা বিষয় হল, তিনি পাঁচ মাসের গর্ভবতী।

আসুন জেনে নিই DSP শিল্পা সাহুর ট্রেনিং, লাভ স্টোরি, নকশালিদের বিরুদ্ধে লড়াই করা এবং করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে লকডাউন পালন করানোর সম্পূর্ণ কাহিনী। শিল্পা সাহু মূল রুপে ছত্তিসগড়ের দুর্গের বাসিন্দা। ওনার স্বামী দেবাংশ সিং রাঠৌরও ছত্তিসগড় পুলিশের DSP।

শিল্পা এবং দেবাংশ ২০১৩ সালে লোক সেবা আয়োগের পরীক্ষায় পাশ করেছিলেন। তখন দু’জন একে অপরকে জানতেন না। PSC পরীক্ষা পাশ করার পর DSP রুপে ২০১৬ সালে নিমোরা অ্যাকাডেমিতে শিল্পা আর দেবাংশ ট্রেনিংরত ছিলেন। তখনই দুজনের সাক্ষাৎ হয়। তবে প্রথমেই দুজনের মধ্যে কোনও একটি বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়েছিল। দুজন একে অপরকে একদমই পছন্দ করতেন না। যদিও ট্রেনিং শেষ হতে হতে দুজন একে অপরের প্রেমে পড়েন।

ট্রেনিং সম্পূর্ণ হওয়ার পর দেবাংশ জাঞ্জগীর চাম্পা আর শিল্পা বিলাসপুরে ডিউটি পান। দুজনের পোস্টিংয়ের মাঝে কয়েক মাইলের দুরত্ব ছিল, কিন্তু দুজন একে অপরের মনের খুব কাছে ছিলেন। কিছু সময় পর শিল্পাকে বালোদে ব্যাটেলিয়ন এবং দেবাংশকে দন্তেওয়ারায় DRG টিমের DSP বানানো হয়। সেই সময় নকশালদের বিরুদ্ধে অপারেশনে শিল্পা মহিলাদের টিম আর দেবাংশ পুরুষদের টিমের নেতৃত্বে ছিলেন।

২০১৯-এ শিল্পা আর দেবাংশ বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে সমাজের কিছু কুসংস্কারের শিকার হয়েছিলেন দুজনেই। কিন্তু দুজন একে অপরের সঙ্গ ছাড়েন নি আর বিয়ে করে নেন। বিয়ের পর DSP স্বামী-স্ত্রী হাতে AK-47 নিয়ে নকশালিদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে জঙ্গলে যান। তাঁরা নকশালের বিরুদ্ধে অনেক অভিযান চালিয়েছেন।

শিল্পা সাহু জানান, তিনি ডিজি ডিএম অবস্থিকে বিয়ের কার্ড দিতে গিয়েছিলেন। তখন ডিজি শিল্পাকে বিয়ের উপহার হিসেবে স্বামী-স্ত্রী কে এক যায়গায় পোস্টিং করে দেন। সেই সময় ডিজি বলেছিলেন, ‘দেবাংশ কিরন্দুল SDPO আর শিল্পা দন্তেওয়ারা হেডকোয়ার্টারে থাকবে। দুজনকে একই জেলায় পাঠাচ্ছি। আমার তরফ থেকে দুজনকে এটাই বিয়ের উপহার। দুজন দান্তেওয়ারা-কিরন্দুল বর্ডারে দেখা করবে।”