Press "Enter" to skip to content

চিন থেকে নীরব মোদী আর মেহুল চোকসির ১৩৫০ কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার করে আনল ভারত

শেয়ার করুন -

পলাতক হীরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী (Nirav Modi) আর মেহুল চোকসির (Mehul Choksi) থেকে টাকা উসুল করার মামলায় বড়সড় সফলতা হাসিল করল ED। বুধবার হংকং থেকে হীরে, মুক্ত সমেত সমস্ত রকম গহনা অলংকার ফেরত আনল ED। হংকং থেকে প্রায় ১ হাজার ৩৫০ কোটি টাকার নীরব মোদী আর মেহুল চোকসির সম্পত্তি ফেরত আনা হয়।

এই বহুমুল্য অলংকার গুলো হংকং এর একটি গোদামে রাখা হয়েছিল। ওই অলংকারের মধ্যে পালিশ করা হীরে, মুক্ত, রুপোর গহনা আছে। এই সমস্ত মুম্বাইয়ে ফেরত আনা হয়েছে। ওই সমস্ত অলংকারের ওজন প্রায় ২ হাজার ৩৪০ কেজি।

এর আগে পাঞ্জাব ন্যশানাল দুর্নীতির প্রধান অভিযুক্ত পলাতক হীরে ব্যবসায়ী নীরব মোদীকে মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত বড়সড় ঝটকা দিয়েছিল। আদালত নীরব মোদীর সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছিল। পিএমএলএ কোর্ট নীরব মোদীর সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার আদেশের পর এখন সবকিছু ভারত সরকারের অধীনে।

ED এর আগেও নীরব মোদীর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার কাজ করেছে। মার্চ ২০২০ তে নীরব মোদীর সম্পত্তি নিলাম করে ৫১ কোটি টাকা পেয়েছিল সরকার। ওই সম্পত্তি গুলোকে বাজেয়াপ্ত করেছিল ED। পলাতক হীরে ব্যবসায়ী বাজেয়াপ্ত করা যেই সম্পত্তি গুলো নিলামে উঠেছিল সেগুলোর মধ্যে একটি রোলস রয়েস গাড়ি, এমএফ হুসেইন আর অমৃতা সেরগিল এর আঁকা ছবি এবং ডিজাইনার হ্যান্ড ব্যাগ ছিল। এর আগে স্যাফরন আর্ট নীরব মোদীর মালিকানা হকের কিছু কলাকৌশলী ২০১৯ এর মার্চ মাসে নিলাম করেছিল।

স্যাফরন আর্টের ওই নিলামি থেকে ৫৫ কোটি টাকা পাওয়া গেছিল। নীরব মোদীর বিরুদ্ধে পাঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাংক থেকে ১৪ হাজার কোটি টাকারও বেশি আর্থিক তছরুপ করার অভিযোগ আছে। নীরব মোদী আপাতত লন্ডনের একটি জেলে বন্দি আছে।