নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

বীরভূমে নির্বাচনের আগে বেনজির সিদ্ধান্ত কমিশনের, নজরবন্দি হলেন অনুব্রত

কলকাতাঃ একুশের মহারণে বীরভূমের ভোটের আগেই নজরবন্দি করা হল বীরভূম জেলার তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্তে মঙ্গলবার বিকেল ৫ঃ৩০ থেকে শেষ দফার নির্বাচন শেষ করে ৩০ এপ্রিল সকাল ৭টা পর্যন্ত ওনাকে নজরবন্দি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। ভোটের আগে কমিশনের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন অনুব্রত মণ্ডল।

রাজ্যে সপ্তম দফার নির্বাচন শেষ হলেও বীরভূম জেলার ১১টি আসনের মধ্যে একটিও আসনে নির্বাচন হয়নি। আগামী ২৯ এপ্রিল একসঙ্গে বীরভূমের ১১টি আসনে নির্বাচন হতে চলেছে। আর নির্বাচনের দিনের আগেই তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে নজরবন্দি করার নির্দেশ দিল কমিশন। ৬০ ঘণ্টার উপরে কোনও নেতাকে নজরবন্দি করে রাখার সিদ্ধান্ত নজিরবিহীন বলে দাবি ওয়াকিবহাল মহলের।

এর আগে ভোটের কদিন আগেই বীরভূম জেলার তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে বেহিসাবি সম্পত্তির জন্য নোটিশ পাঠিয়েছিল আয়কর দফতর। আর এবার সপ্তম দফার নির্বাচনের দিনে গরু পাচারকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে অনুব্রতকে তলব করেছে সিবিআই। আর এই নিয়েই এখন সরগরম রাজ্য রাজনীতি। আর এরই মধ্যে অনুব্রতকে নজরবন্দি করল কমিশন। তবে সপ্তম দফার নির্বাচনের দিনেই অনুব্রতবাবু বুঝিয়ে দিলেন যে, ওনাকে নোটিশ পাঠিয়ে আর তলব করে দমানো যাবে না।

আজ মঙ্গলবার সিবিআই দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল অনুব্রতর। তবে উনি আজ সিবিআই-এর তলবে সাড়া দেননি। পাল্টা সোমবার বীরভূমের একটি জনসভাতে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, ‘দরকার হলে কালকেই আবির খেলব।” সোমবার দুবরাজপুরের দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে একটি ছোট জনসভা করেন অনুব্রত মণ্ডল। সেখান থেকে চিরাচরিত ভাবে প্রধানমন্ত্রী মোদী এবং বিজেপিকে নিশানা করেন অনুব্রত মণ্ডল।

সেই সভা থেকে অনুব্রতবাবু বলেন, বাংলায় করোনার বর্ধিত প্রকোপের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই দায়ী। তিনি এও বলেন যে, বাংলায় আট দফার নির্বাচন করার নায়ক নরেন্দ্র মোদী। তিনি হুঁশিয়ারির সুরে বলেন, ২ মে ১০০ বার খেলা হবে। অনুব্রত মণ্ডল বলেন, আজকের ৩৪ আসনের মধ্যে ৩২টিই তৃণমূলের দখলে আসবে। আমরা ২১০ পার করে ফেলেছি। দরকার হলে কালই আবির খেলব।

 

Related Articles

Back to top button