Press "Enter" to skip to content

রাষ্ট্রসঙ্ঘে ভারতের স্থায়ী পদের দাবিকে সমর্থন ফ্রান্সের, CAA ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলা বলে জানালো তাঁরা

শেয়ার করুন -

নাগরিকতা সংশোধন আইন (CAA) নিয়ে দেশের রাজধানী দিল্লী সমেত অনেক রাজ্যে হিংসক প্রদর্শন হচ্ছে। এদের মধ্যে সবথেকে বেশি আক্রান্ত পশ্চিমবঙ্গ (West bengal)। এবার এই মামলায় ফ্রান্স (France) ভারতের সমর্থন করলো। ভারতে ফ্রান্সের রাজদূত ইমানুয়েল লেনিন (Emmanuel Lenain) বলেন, নাগরিকতা সংশোধন আইন ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলা, আর আমরা মন থেকে এটার সন্মান করি। উনি বলেন, ভারত ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী।

সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় ফ্রান্সের রাজদূত ইমানুয়েল লেনিন বলেন, ভারত একটি গণতান্ত্রিক দেশ, আর সেখানে যখন মানুষের বিচারধারা আলাদা হয়, তখন তাঁরা দেশের সর্বোচ্চ আদালতে যেতে পারেন। দেশের সর্বোচ্চ আদালত নির্ণয় নেওয়া জন্য সম্পূর্ণ ভাবে সক্ষম।

উনি বলেন, আমার হিসেবে কোন দেশকেই ভারতের অভ্যন্তরীণ মামলায় দখল দেওয়া অথবা কোন মন্তব্য করা উচিৎ না। আমরাও ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী, আর আমাদের কাছেও এই মামলা নিয়ে মন্তব্য করা উচিৎ না। এরপর ফ্রান্সের রাজদূত ইমানুয়েল লেনিন বলেন, আমরা সংযুক্ত রাষ্ট্রের সুরক্ষা পরিষদ (UNSC) তে স্থায়ী পদের জন্য ভারতের দাবিকে সমর্থন জানাই। উনি বলেন, ভারত আর ইউরোপিয়ান সঙ্ঘের মধ্যে FTA নিয়ে আমাদের অবস্থান স্পষ্ট, আমরা FTA নিয়ে আবারও চর্চায় বসার জন্য প্রস্তুত। এর জন্য দুই দেশের সম্মতি আবশ্যিক।

আপনাদের জানিয়ে রাখি, শুধু নাগরিকতা সংশোধন আইন না এর আগে জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া নিয়েও ভারতের সমর্থন করেছিল ফ্রান্স। এছাড়াও মাসুদ আজাহারকে রাষ্ট্র সঙ্ঘ দ্বারা গ্লোবাল টেরোরিস্ট ঘোষণা করার আগে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ান ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে তাঁকে জঙ্গি ঘোষণা করেছিল। আর এর জন্য ফ্রান্স গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। ফ্রান্সের সাথে ভারতের সম্পর্ক যে দিন দিন আর দৃঢ় হচ্ছে সেটা এই কয়েকটি ঘটনা থেকেই বোঝা যায়।