Press "Enter" to skip to content

ওয়াসিম রিজভিকে ইসলাম থেকে বহিষ্কার! মাথা কেটে আনার ফতোয়া জারি করলেন মৌলানা

শেয়ার করুন -

লখনউঃ কুরআন থেকে ২৬ টি আয়াত হটানোর দাবি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন ওয়াসিম শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভি। আর এই কারণে ওনার উপর ক্ষুব্ধ গোটা দেশের মুসলিম সমাজ। শিয়া আর সুন্নি দুই সম্প্রদায়ের মুসলিমরাই ওয়াসিম রিজভির বিরোধিতা করছে। আর সেই ক্রমেই ওয়াসিম রিজভির মাথা কেটে আনতে পারলে ১১ লক্ষ টাকার পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছে।

আরেকদিকে, লখনউতে শিয়া-সুন্নি উলেমারা একটি প্রেস কনফারেন্স ডেকে ওয়াসিম রিজভির মন্তব্যের নিন্দা করে ওনাকে ইসলাম থেকে বহিষ্কৃত করার ফতোয়া জারি করেছেন।

উত্তর প্রদেশের টিলা মসজিদের ইমাম মৌলানা ফজলে মান্নান রহমানি নদবী বলেন, ওয়াসিম ইজরায়েলের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। ওনার লক্ষ্য মুসলিমদের ক্ষতি করা। মৌলা কলবে নুরী বলেন, ওয়াসিম যেই কাজ করেছে সেটাকে ক্ষমা করা যায় না। ওয়াসিম রিজভি সমাজের অঙ্গ না। উনি সবসময় মুসলিমদের বদনাম করে এসেছে। তিনি মুসলিম সমাজের কোনও কাজেই আসেন নি। দুই মৌলানাই ওয়াসিম রিজভিকে ইসলাম থেকে খারিজ আর মুসলিম সমাজ থেকে বেদখল করার ফতোয়া জারি করেছেন।

আরেকদিকে, মোরাদাবাদ বার অ্যাসোসিয়েশানের সভাপতি আমীরুল হাসান জাফরি বলেন, আমরা ওয়াসিম রিজভির দ্বারা দায়ের করা এই আবেদনের বিরোধিতা করছি। কুরআন মজিদ নিয়ে ভুলভাল বয়ানবাজি করা মানুষকে সাজা দেওয়া কোনও অপরাধ না। জাফরি বলেন, ওয়াসিমের মাথা যে কেটে আনতে পারবে তাঁকে চাঁদা তুলে পুরস্কার দেওয়ার দায়িত্ব আমি নিজে করব। দরকার পড়লে আমি নিজের সন্তানকে পর্যন্ত বিক্রি করে দেব।