অপরাধনতুন খবর

ঐশী ঘোষের নেতৃত্বে মারধর করা হয়েছিল JNU এর সিকিউরিটি গার্ডকে! দায়ের হল FIR

জওহর লাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় (JNU) তে গত রবিবার পাঁচ জানুয়ারিতে হওয়া হিংসা নিয়ে ছাত্র সঙ্ঘের প্রেসিডেন্ট ঐশী ঘোষ (Aishe Ghosh) সমেত ১৮ জনের বিরুদ্ধে দিল্লী পুলিশ এফআইআর দায়ের করেছে। এফআইআর অনুযায়ী, জেএনইউ এর চীফ সিকিউরিটি অফিসার পুলিশকে তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে।

চীফ সিকিউরিটি অফিসার অভিযোগে জানিয়েছে যে, ঐশী ঘোষ আর তাঁর ১৮ সঙ্গি ৪ জানুয়ারি দুপুর প্রায় একটা নাগাদ মহিলা গার্ডকে হেনস্থা করে, এছাড়াও তাঁরা অন্যান্য গার্ডকে মারধর করে এবং গালিগালাজ করে। ওঁরা জোর জবরদস্তি CIS রুমে ঢুকতে চাইছিল। আর সেটারি বিরোধিতা করেছিলেন সিকিউরিটি গার্ড। এরপর এরা কাঁচ ভেঙে সার্ভার রুমে ঢুকে যায় আর অপ্টিক ফাইবার কেবল কেটে দিয়ে বায়োম্যাট্রিক ম্যাশিন ভেঙে ফেলে।

আমরা এর আগেই জানিয়েছিলাম যে, JNU এর অশান্তির একদিন আগে বাম ছাত্র সংগঠনের ছাত্র-ছাত্রীরা ওয়াই ফাই পরিষেবা চালু করার জন্য সিকিউরিটি গার্ডকে ধরে মারধর করে এবং সার্ভার রুমের বাইরে বসে ধর্না দেয়। তাঁরা কোন রকম ভাবেই রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া চালু হতে দিতে চাইছিল না। আইপিসি ধারা 323, 341, 506 অনুযায়ী, সরকারি সম্পত্তির ক্ষতি করার জন্য ঐশী ঘোষ এবং তাঁর সঙ্গীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছে।

আরেকদিকে JNU এর অশান্তির তদন্তের জন্য ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং কমিটি এর প্রধান IPS  অফিসার শালিনী সিংহ JNU যান। সেখানে গিয়ে উনি এই মামলার সাথে জড়িত প্রতিটি ঘটনার তথ্য নেন। IPS  অফিসার শালিনী সিংহ পুলিশে জয়েন্ট কমিশনার র‍্যাংকের আধিকারিক। DCP সমেত অন্যান্য পুলিশ আধিকারিকও JNU ক্যাম্পাসে যায়। দিল্লী পুলিশ হামলাকারী মুখোশধারী গুণ্ডাদের চিহ্নিত করার জন্য ফেস রেকগনাইজেশন টেকনোলোজি ব্যাবহার করছে। দিল্লী পুলিশ জানিয়েছে যে, পাঁচ জানুয়ারি হিংসার পর এখন আপাতত শান্তি আছে।

Back to top button
Close