Press "Enter" to skip to content

বন্যার জেরে ভয়াবহ আর্থিক ক্ষতির মুখে চীন! স্থানান্তরিত করা হচ্ছে প্রায় ৪ কোটি মানুষকে

শেয়ার করুন -

বিগত কয়েক মাস ধরে চীন আন্তর্জাতিক খবরে এক চর্চার বিষয় হয়ে রয়েছে। প্রথমে করোনা ভাইরাস ; পরে চীন , ভারত সংঘর্ষ ইস্যু চিন কে ক্রমে ক্রমে চর্চার শিখরে নিয়ে গেছে। এখন চীন সম্পর্কিত আরো এক খবর আন্তর্জাতিক মিডিয়ার নজর কেড়েছে। আসলে চীন পুরো বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে যে পাপ করেছে তার ফল পাওয়ার শুরু হয়ে গেছে।

ভারতীয় শাস্ত্রে বলা হয়, যদি রাজা কোনো পাপকাজ করে তাহলে ফল প্রজাদেরও ভুগতে হয়। এখন চীনের কমিউনিস্ট পার্টি কোরোনা ছড়িয়ে যে পাপ করেছে তার ফল চীনের জনগণকে আর্থিক, সামাজিক,প্রাকৃতিক সব দিক থেকেই ভুগতে হবে। যার প্রভাব ইতিমধ্যে দেখা মিলতে শুরু হয়েছে।

চীনের উপর প্রকৃতি স্বয়ং চাবুক চালিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী পুরো চীন জুড়ে ভয়াবহ বন্যা শুরু হয়েছে। যাতে প্রায় ৪ কোটি মানুষকে অন্যত্র স্থানান্তরিত করতে বাধ্য হচ্ছে চীন। বন্যায় প্রভাবিত মানুষজনের সংখ্যা এতটাই বেশি যে চীন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রীতিমতো ঘাবড়ে উঠেছে। ভয়ংকর বন্যার জন্য চীনকে বড়সড় আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে বলেও বিশেষজ্ঞরা অনুমান করছেন।

এই পরিস্থিতিতে চীন এই ভীষণ বন্যা মোকাবিলার জন্য আনহুই প্রদেশে এক অঞ্চলে একটি নদীর বাঁধ নিজেরাই ধ্বংস করে দিয়েছে , যাতে বন্যার অতিরিক্ত জল সমতায় আসে। এই বন্যা এখনও পর্যন্ত ১৪০ জনেরও বেশি মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে এবং ৩.৮ কোটিরও বেশি মানুষের জীবনযাত্রার উপর প্রভাব ফেলেছে বলে চীন জানিয়েছেন।

বর্তমানে চীনের প্রায় 27 টি প্রান্তের মানুষ এই বিপর্যয়ের সম্মুখীন;যাদের মধ্যে আনহুই,হুবেই, হান্নান সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। চীনের প্রায় প্রত্যেক প্রান্তের নদীর জল সতর্কসীমা অতিক্রম করেছে।