অপরাধনতুন খবর

মহিলার প্রাইভেট পার্টে বোতল ঢুকিয়ে গণধর্ষণ! ব্যাঙ্গালুরুতে হাকিল সহ গ্রেফতার ৪ বাংলাদেশি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল, যেখানে কয়েকজন যুবক মিলে এক যুবতীকে গণধর্ষণ করতে দেখা গিয়েছিল। প্রথমে জানা গিয়েছিল যে ওই যুবতী উত্তর-পূর্বের কোনও রাজ্যের, কিন্তু পরে তদন্ত করে ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ জানায় যে ওই মহিলা বাংলাদেশী। অবৈধ ভাবে সে ভারতে প্রবেশ করেছিল। পুলিশ এই মামলায় ৬ জনকে চিহ্নিত করেছে আর তাঁদের মধ্যে ৪ জনকে গ্রেফতারও করেছে।

তদন্তে গতি আনার জন্য ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ নির্যাতিতা যুবতীর খোঁজ চালাচ্ছে। ব্যাঙ্গালুরু সিটি পুলিশের কমিশনার কমল কান্ত জানান, প্রাথমিক তদন্তের পর ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিতাকে খোঁজার জন্য পুলিশের একটি টিম গঠন করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, সমস্ত অভিযুক্ত বাংলাদেশের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়, নির্যাতিতার আর্থিক সমস্যার কারণে তাঁকে প্রতারিত করে তাঁর সঙ্গে গণধর্ষণ করা হয়। ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ আশ্বস্ত করেছে যে, তৎপরতার সঙ্গে বরিষ্ঠ আধিকারিকদের নেতৃত্বে ঘটনার তদন্ত হবে। ব্যাঙ্গালুরুর রামমূর্তি থানায় এই মামলা FIR দায়ের হয়েছে। আজ অভিযুক্তদের আদালতে পেশ করা হবে। পুলিশ জানান ৬ জন অভিযুক্তের মধ্যে ২ জন মহিলাও আছে।

এই ঘটনা ব্যাঙ্গালুরুর একটি NRI কলোনিতে ঘটেছে। অভিযুক্তদের মধ্যে একজন টিকটকে বেশ সক্রিয় আর তাঁর অনেক অনুগামীও রয়েছে। প্রায় এক সপ্তাহ আগে এই ঘটনা ঘটেছিল। সমস্ত অভিযুক্তই বেশ্যাবৃত্তির সঙ্গে যুক্ত বলে জানা গিয়েছে। নির্যাতিতাকে প্রতারিত করে ধর্ষণ করার ঘটনার পিছনে ব্যক্তিগত শত্রুতা থাকতে পারে বলে জানা গিয়েছে। অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদের পর একটি বড়সড় মানবপাচারের গ্যাংয়ের মুখোশ খুলতে পারে।

ধৃতরা পরিচয় জানিয়েছে পুলিশ মহম্মদ সাহিক (৩০) হৃদয় বাবু (২৫) আর সাগর (২৩) আর হাকিল (২৩) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সবাই বাংলাদেশী বাসিন্দা বলে জানানো হয়েছে পুলিশের তরফ থেকে। আপাতত ঘটনার তদন্তে নেমেছে ব্যাঙ্গালুরু পুলিশ।

Related Articles

Back to top button