নতুন খবরভারতবর্ষরাজনীতি

বিপদের মুখে ঝাড়খণ্ড কংগ্রেস, তড়িঘড়ি দিল্লীর উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন চার বিধায়ক

নয়া দিল্লীঃ বিগত কিছু সময় ধরেই কংগ্রেস (Congress) চরম সঙ্কটে ভুগছে। বর্তমানে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট আর সচিন পাইলটের মধ্যে চওড়া ফাটল দেখে দিয়েছে। আরেকদিকে, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং আর নবজ্যোৎ সিং সিধুর মধ্যে বিবাদ সামনে এসেছে। দুই রাজ্যে যখন নেতৃত্বে ফাটল দেখা দিয়েছে, তখন এবার নতুন করে ছত্তিসগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেশ বাঘেল আর টিএস সিং দেও-র মধ্যে বিবাদ সামনে এসেছে।

উল্লেখ্য, কংগ্রেসের চার বিধায়ক ইরফান আনসারি, উমাশঙ্কর অকেলা, রাজেশ কচ্ছপ আর মমতা দেবী দিল্লীতে রওনা দিয়েছেন। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, এরা সবাই রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ। আজ তাঁরা দিল্লীতে কংগ্রেসের মহাসচিব কেসি বেনুগোপাল রাও-এর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

কংগ্রেস বিধায়ক ইরফান আনসারি টুইট করে দিল্লী যাওয়ার কথা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘সংগঠনকে মজবুত করাই আমাদের লক্ষ্য। ঝাড়খণ্ড কংগ্রেসকে উজ্জীবিত করার জন্য আমার নেতৃত্বে চার বিধায়ক উমাশঙ্কর অকেলা, রাজেশ কচ্ছপ আর মমতা দেবী প্রথমে ঝাড়খণ্ডের ইনচার্জ আরপিএন সিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবে, এরপর বুধবাদ রাষ্ট্রীয় মহাসচিব কেসি বেনুগোপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবে।”

প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, দিল্লীতে কুচ করা এই চার বিধায়ক ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস কর্মীদের সম্মান দেওয়ার প্রসঙ্গ তুলবেন। তাঁদের নগর নিগম আর কমিশনে জায়গা দেওয়া নিয়ে কথাবার্তা হবে। কদিন আগেই এনারা বলেছিলেন যে, ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস কর্মীরা খুশি নেই, আর তাঁদের নজরান্দাজ করার কারণে দলের ক্ষতি হচ্ছে।

উল্লখ্য, ঝাড়খণ্ডে হেমন্ত সোরেন ক্যাবিনেটে মন্ত্রী পদ নিয়ে বিবাদ চলছে। আর এই কারণে মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন নিজে দিল্লী গিয়ে সোনিয়া গান্ধী আর রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করতে যান। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, চারদিন দিল্লীতে থাকার পরেও তাঁদের সঙ্গে দেখা হয়নি সোরেনবাবুর।

Related Articles

Back to top button