নতুন খবরভারতবর্ষ

থোরাই কেয়ার! যেই ব্রিজ নিয়ে চীনের সাথে এত হুলস্থূল, সেই ব্রিজ করেই ফেলল ভারত

নয়া দিল্লীঃ লাদাখ (Ladakh) থেকে একটি বড় খবর সামনে আসছে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, গালওয়ান উপত্যকায় (Galwan valley) ভারত সেই ব্রিজ বানিয়ে ফেলেছে, যেটিকে চীন রুখতে চেয়েছিল। গালওয়ান উপত্যকায় এই ব্রিজ আর ভারতের তৈরি একটি রাস্তা নিয়ে বিবাদ বাধে চীনের সাথে। আর এই বিবাদ সংঘর্ষের রুপ নিয়ে নেয় এবং ভারতের ২০ জন জওয়ান শহীদ হন। যদিও চীনের ক্ষতি ভারতের থেকে দ্বিগুণ বেশি হয়েছে।

সেনার ইঞ্জিনিয়াররা পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় গালওয়ান নদীর উপর ৬০ মিটার দীর্ঘ ব্রিজের নির্মাণ সম্পূর্ণ করেছে। এই ব্রিজের ফলে ভারতীয় সেনা ওই নদীর উপর দিয়ে সহজেই যাতায়াত করতে পারবে। এই ব্রিজ সংবেদনশীল এলাকায় ভারতের শক্তি আরও বাড়িয়ে তুলবে। এছাড়াও দরবুক থেকে দৌলত বেগ ওল্ডি পর্যন্ত ২৫৫ কিমি রণনৈতিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ সড়কের সুরক্ষা সুনিশ্চিত করবে।

প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী শ্রীপদ নায়েক বলেন, ভারতীয় জওয়ানদের উপর চীনের হামলা পূর্বপরিকল্পিত ছিল। কিন্ত ভারত চীনের সেনাকে LAC এর এক ইঞ্চি আগে আসতে দেয়নি। শুক্রবার শ্রীপদ নায়েক সাংবাদিকদের সামনে বলেন, আজ চীনের ভারতের প্রতি আক্রমনাত্বক মনোভাব অনৈতিক। চীন ভারতের সেনার উপর যেই হামলা করেছিল, সেটি সম্পূর্ণ পূর্বপরিকল্পিত ছিল।

আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, না ওঁরা আমদের সীমান্তে ঢুকেছিল, না ওঁরা আমাদের কোন পোস্ট দখল করেছিল। আমাদের ২০ জন জওয়ান শহীদ হয়েছেন, কিন্তু যারা ভারত মায়ের দিকে চোখ তুলে তাকিয়েছিল তাদের শিক্ষা দেওয়া হয়েছে। সেনা মোতায়েন হোক, জবাবি পদক্ষেপ হোক … হাওয়া, জমি অথবা সমুদ্র আমাদের সেনা আমাদের দেশের রক্ষার জন্য যা করার হবে করবে। আয আমাদের কাছে এমন ক্ষমতা আছে যে কেউ আমাদের জমির এক ইঞ্চির উপরেও নজর লাগাতে পারবে না।

আরেকদিকে, আজ এই সর্বদলীয় বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বলেন, ‘চীন গণতান্ত্রিক দেশ না, ওঁরা স্বৈরাচারী, ওঁরা সেটাই করে যেটা ওঁদের ইচ্ছে হয়। আর আমরা সবাই একসাথে মিলেমিশে কাজ করি। ভারত জিতবে, চীন হারবে। একতার সাথে বলুন, একতার সাথে চিন্তা করুন, একতার সাথে কাজ করুন।”  উনি আজ পরিস্কার জানিয়ে দেন যে, তিনি সরকারের পাশে আছেন।

Related Articles

Back to top button