নতুন খবরভারতবর্ষভারতীয় সেনা

বুকে, হাতে গুলি! এরপরেও বন্দুক উঠিয়ে চার জঙ্গিকে নিকেশ করলেন ভারতীয় জওয়ান

নয়া দিল্লিঃ ভারতীয় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে গরুড় স্পেশাল ফোর্সের () জওয়ানরা শনিবার পুলওয়ামায় একটি অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল, যেখানে চার সন্ত্রাসী নিহত হয়েছিল। পুলওয়ামা এনকাউন্টারের সময় স্পেশাল ফোর্সের অফিসারের শরীরে দুটি গুলি লেগেছিল, কিন্তু তা সত্ত্বেও তিনি সন্ত্রাসীদের ছাড়েন নি। সংবাদ সংস্থা ANI এই তথ্য দিয়েছে।

গরুড় কমান্ডোরা চার বছর আগে একটি বড় অপারেশনের জন্য লাইমলাইটে এসেছিল। ২০১৭ সালে ভারতীয় বিমান বাহিনীর এই জওয়ানরা দুটি বড় অপারেশনে আট সন্ত্রাসীকে নিকেশ করেছিল। সূত্র থেকে জানা যায় যে, শনিবার সন্ধ্যা ৭ টা নাগাদ, পুলওয়ামায় একটি অপারেশনের জন্য সেনাবাহিনীর ৫৫ রাষ্ট্রীয় রাইফেলস, জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ সহ নিরাপত্তা বাহিনী নাইরা গ্রামে তল্লাশি অভিযান পরিচালনা করে।

কিছুক্ষণ পর স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে একটি বাড়ির ভেতরে সন্ত্রাসীদের উপস্থিতি শনাক্ত করতে সক্ষম হয় সেনাবাহিনী। নিরাপত্তা বাহিনী অবিলম্বে সেই বাড়ির আশেপাশে বসবাসকারী সাধারণ মানুষদের সরিয়ে নেয় এবং নিশ্চিত করে যে তাদের নিরাপদ দূরত্বে পাঠানো হয়েছে।

নিরাপত্তা বাহিনী বাড়িটি ঘিরে ফেলেছে দেখে সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল থেকে পালাতে গুলি চালানো শুরু করে দেয়। সন্ত্রাসীরা যখন পালানোর চেষ্টা করছিল, তখন তারা সেনাবাহিনী এবং গরুড় স্পেশাল ফোর্সের জওয়ানদের সরাসরি গুলিবর্ষণ করে, যার ফলে উভয় পক্ষ থেকে ব্যাপক গোলাবর্ষণ হয়। সূত্র জানিয়েছে যে, এই অভিযানে গরুড় স্পেশাল ফোর্সের স্কোয়াড্রন লিডার সন্দীপ ঝাঁঝারিয়ার () বুকে এবং বাম হাতে দুটি গুলি লাগে।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, আহত হওয়া সত্ত্বেও পলাতক তিন সন্ত্রাসীকে খতম না করা পর্যন্ত গরুড় স্পেশাল ফোর্সের স্কোয়াড্রন লিডার সন্দীপ ঝাঁঝারিয়া সন্ত্রাসীদের উপর আক্রমণ করেতে থাকেন। রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে, তিনজনকে নির্মূল করার পর সৈন্যরা যখন বাড়িতে আর কেউ লুকিয়ে রয়েছে কী না সেটার খোঁজ করছিল, তখন সেখানে লুকিয়ে থাকা এক সন্ত্রাসী বেরিয়ে এসে গরুড় জওয়ানদের উপর আচমকাই গুলি চালাতে শুরু করে, এতে এক জওয়ান গুলিবিদ্ধ হন। এরপর বাহিনীও পাল্টা জবাব দিয়ে চতুর্থ এবং শেষ সন্ত্রাসীকে নিকেশ করে।

Related Articles

Back to top button