Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে হিন্দুদের অত্যাচারিত হতে হয়, শোয়েব আখতার ঠিক বলেছেন: গৌতম গম্ভীর।

শেয়ার করুন -

পাকিস্তানের প্রাক্তন লেগ-স্পিনার ড্যানিশ কানারিয়াকে নিয়ে বড়ো চর্চা শুরু হয়েছে। যা নিয়ে এখন আন্তর্জাতিক মহলের নানা প্রাক্তন ক্রিকেটারগণ তাদের প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে। আসলে পাকিস্তানের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতার (Shoaib Akhtar) পাকিস্তানের আসল পরিস্থিতি সম্পর্কে বড়ো পর্দাফাঁস করেছেন। শোয়েব আখতার পাকিস্তানের প্রাক্তন লেগ-স্পিনার ড্যানিশ কানারিয়াকে নিয়ে এক চমকপ্রদ প্রকাশ করেছেন। একটি টিভি শোতে শোয়েব বলেছিলেন, “ড্যানিশ হিন্দু ছিল। সুতরাং এই কারণে তার প্রতি অন্যায় করা হতো। তিনি কেন আমাদের সাথে খাবার খান তা নিয়ে কিছু খেলোয়াড় আমাকে প্রশ্নঃ করতেন? আমি এই কথা শুনে রেগে যেতাম। এই মুসলিম করতে গিয়ে পাকিস্তানের ক্রিকেট নষ্ট হয়েছে।”

এখন ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir) এই চর্চার উপর মন্তব্য করেছেন। গৌতম গম্ভীর বলেছেন এটাই পাকিস্তানের আসল সত্য। প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গৌতম গম্ভীর তার বিবৃতিতে বলেছেন, “এটিই পাকিস্তানের আসল চেহারা। অন্যদিকে দীর্ঘ সময় সংখ্যালঘু হয়েও ভারতীয় দলের নেতৃত্বে ছিলেন মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, যা বড় বিষয়।” গৌতম গম্ভীর প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকেও এই বিষয়ে টেনে নিয়েছেন এবং বলেছেন যে খেলোয়াড় হওয়া তার দলের খেলোয়াড়ের সাথে এই ঘটনাটি লজ্জাজনক।”

গৌতম গম্ভীর আরও বলেছিলেন, “প্রাক্তন ক্রিকেটার ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও, একজন দেশের খেলোয়াড় যারা তার দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন তাদের এই সমস্ত বিষয়টি অতিক্রম করতে হবে। এটি লজ্জার বিষয়।” জানিয়ে দি,
শোয়েব আখতার বলেন, আমাদের দেশের টিম ড্রেসিংরুমেই নষ্ট হয়ে গেছে। ড্রেসিংরুমে হিন্দু খ্রিস্টান খেলোয়াড়দের সাথে খারাপ ব্যাবহার করা হতো বলে জানান শোয়েব আখতার। শোয়েব আখতার বলেন আমরা এই নিয়ে অনেকবার অন্য খেলোয়াড়দের সাথে ঝেমলা হয়ে গেছে। কারণ তারা হিন্দু খেলোয়াড়দের সাথে এক স্থানে না খাওয়ার কথা বলতো। শুধু এই নয়, পাকিস্তানের ক্রিকেট বোর্ড হিন্দু খেলোয়াড়দের ক্রেডিটকে প্রকাশ করতো না।

শোয়েব আখতার বলেন, ড্যানিশ কানারিয়া বহুবার আমাদের ম্যাচ জিতিয়েছেন। কিন্তু ক্রেডিট আমাকে ও অন্য প্লেয়ারদের দিয়ে দেওয়া হতো। এটা আমার খুবই খারাপ লাগতো। শুধুমাত্র ধর্মের জন্য একটা খেলোয়াড়কে তার প্রাপ্ত সন্মান দেওয়া হতো না। ইউসুফ যোহানাকে পাকিস্তানের খ্রিস্টান খেলোয়াড় ছিলেন। তাকেও এইভাবে তার প্রাপ্ত ক্রেডিট থেকে বঞ্চিত করা হতো বলে জানান শোয়েব আখতার।