নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ভোটের পর অনুব্রত মণ্ডলকে জেলে ঢোকানোর হুঁশিয়ারি স্মৃতি ইরানির

বোলপুরঃ রাজ্যে ৬ দফার নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে, বাকি আর দুই দফা। এই দুই দফার মধ্যে অনুব্রত মণ্ডলের গড় বলে পরিচিত বীরভূমেও নির্বাচন রয়েছে। বীরভূম নিয়ে বাড়তি নজরদারি চালানোর পরিকল্পনা নির্বাচন কমিশনের। ইতিমধ্যে বীরভূম জেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দুঁদে IPS অফিসার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠিকে। যদিও বীরভূম জেলার তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল পরিস্কার জানিয়ে দিয়েছেন যে, কমিশন যাকেই পাঠাক না কেন, বীরভূমে আগেও যেমন ভোট হত এবারও তেমনই হবে।

আর এরই মধ্যে এবার বীরভূমে নির্বাচনী প্রচারে গেলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। তিনি ইঙ্গিতে ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, ২ মে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হওয়ার পর অনুব্রত মণ্ডলের জেল নিশ্চিত। বোলপুরের বিজেপি প্রার্থী অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায়ের সমর্থনে একটি জনসভা করেন স্মৃতি ইরানি। সেখানে তিনি অনুব্রত মণ্ডলকে ‘গুন্ডাভাই” বলে সম্বোধন করেন। তিনি এও বলেন যে, ২ মে’র পর তৃণমূলের সব গুন্ডাদের জেলে ঢোকাব।

এদিনের সভা থেকে স্মৃতি ইরানি বলেন, ‘এখানে একজন গুন্ডাভাই আছেন। ২ তারিখের পর তৃণমূলের যত গুন্ডা আছে, তাঁদের সবাইকে জেলে পুড়ব। ভোটের পর জেলের ভেতরে থাকবে তুমি গুন্ডাভাই। আর আমরা বাইরে থেকে তোমাকে নমস্কার জানাব।” যদিও, স্মৃতি ইরানি এদিন সরাসরি অনুব্রত মণ্ডলের নাম নেননি।

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে বীরভূমের ইলামবাজারে একটি জনসভা করেছিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। সেদিন তিনি অনুব্রত মণ্ডলের নাম না নিয়ে বলেছিলেন যে, তৃণমূলের সুপার ম্যানকে ছাড়বে না গোয়েন্দা সংস্থা। আর এর ঠিক কদিন পরই গতকাল আয়কর দপ্তর থেকে অঢেল এবং বেনামি সম্পত্তির তথ্যের জন্য অনুব্রত মণ্ডলকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

Related Articles

Back to top button