নতুন খবরভারতবর্ষ

লাদাখে চীনের উপর নজর রাখতে ইজরায়েলের সাহায্য নিচ্ছে ভারত, মিলল মঞ্জুরি

নয়া দিল্লীঃ ভারত-চীন সীমান্তে (India China Rift) চলা উত্তেজনার পর এবার সীমান্তে আগের থেকে অনেক বেশি পাহারা বাড়িয়ে দিয়েছে ভারত। পূর্ব লাদাখে উত্তেজনার মধ্যে ভারত ওই এলাকায় ড্রোন দিয়ে নিজরদারি শুরু করে দিয়েছে। এর সাথে সাথে ভারত-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ (ITBP) ওই এলাকায় আরও ব্যাটেলিয়ন ডেকে নিয়েছে। ৩ হাজার ৪৮৮ কিমি দীর্ঘ বাস্তবিক নিয়ন্ত্রণ রেখা (LAC) তে সেনার সাহায্যের জন্য এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

সেনার সাহায্যের জন্য ITBP কিছু অতিরিক্ত ব্যাটেলিয়ন ঘটনাস্থলে নিয়ে আসার নির্ণয় ২০ জুন নিয়েছিল। DGMO লেফটেনেন্ট জেনারেল পরমজীত সিং আর ITBP এবং BSF এর মহানির্দেশক এসএস দেসবাল লাদাখের বর্তমান পরিস্থিতির সমীক্ষা করার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ভারত সরকারের শীর্ষ সুরক্ষা আধিকারিক XIV কোর কম্যান্ডার লেফটেনেন্ট জেনারেল হরিন্দর সিং PLA এর সাথে উত্তেজনা নিয়ে সমীক্ষা বৈঠক করেন।

মোদী সরকার এলএসিতে চীনের সেনার যেকোন দুঃসাহস জবাব দেওয়ার জন্য আধিকারিকদের সাথে সৈন্য আর জাতীয় প্রযুক্তি নিবিড় সংস্থা (NTRO) কে সীমান্তে কড়া নজরদারি চালাতে ড্রোন মোতায়েন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে। অতিরিক্ত ড্রোন হাসিল করার জন্য অনুমতি পাওয়ার পর আপাতত NTRO দ্বারা ব্যবহৃত ইজরায়িলি হেরোন (IAI Heron Drone) মাঝারি উচ্চতার ড্রোন এলাকায় নজরদারি চালাচ্ছে।

আধিকারিকরা জানান, সীমান্তের পশ্চিমি, মধ্য পূর্ব এলাকায় কোন প্রকারের অতিক্রমণ রোখার জন্য ভারত এলএসিতে নিজেদের স্পেশ্যাল মাউন্টেন ফোর্স্কে মোতায়েন করেছে। এর সাথে সাথে ITBP উত্তর দিকে লড়ার জন্য প্রশিক্ষিত ফোর্সকে মোতায়েন করে সীমান্তে সুরক্ষা বাড়িয়ে দিয়েছে। চীনের সেনাকে উপযুক্ত জবাব দেওয়ার জন্য মাউন্টেন ফোর্সকে লাদাখে মোতায়েন করা হয়েছে। এই ফোর্স ১৯৯৯ এর কার্গিল যুদ্ধে পাকিস্তানকে কাঁদিয়ে ছেড়েছিল। এছাড়াও চীনের সেনা বিশেষজ্ঞ কিছুদিন আগেই জানিয়েছিল যে, ভারতের এই সেনা গোটা বিশ্বে সবথেকে ভয়ঙ্কর।

Back to top button
Close