আন্তর্জাতিকনতুন খবর

চুল, দাঁড়ি কাটা নিয়ে আফগানিস্তানে জারি হলো নতুন নিয়ম! প্রত্যেক সেলুনে পৌঁছে যাচ্ছে নোটিস

ক্ষমতা দখলের পর থেকেই ফতোয়া জারি অব্যাহত রয়েছে তালিবানের। নারী পুরুষ সকলেই তালিবান শাসনে দিশেহারা। তালিবানের নতুন ফতোয়ায় বিপাকে পড়েছে পুরুষরা। কারণ এখন থেকে নিয়ম অনুযায়ী, এবার থেকে আর পচ্ছন্দমতো দাড়ি কাটতে বা ছাটতে পারবেন না ওদেশের পুরুষেরা।

সেলুনে সেলুনে পৌঁছে যাচ্ছে নোটিস

আফগানিস্তানের হেলমন্দ প্রদেশের প্রতিটি সেলুনে গিয়ে নাপিতদের হুমকি দিতে শুরু করেছে তালিবানরা। খুব তাড়াতাড়ি দেশজুড়ে চালু হবে এই নয়া আইন। এমনকী হেলমন্দের সব নাপিতদের নোটিশ মারফত জানানো হয়েছে চুল এবং দাড়ি কাটার সময় অবশ্যই শরিয়া আইন মানতে হবে। যদি কোনও ব্যক্তি বা নাপিত এই কাজ করতে গিয়ে ধরা পড়েন তাহলে কড়া শাস্তির বিধানও রয়েছে।

তালিবানদের দাবি, ইসলামিক আইন মেনেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালিবানদের প্রথম শাসনকালে কট্টরপন্থী ইসলামীরা ফ্ল্যামবয়েন্ট হেয়ারস্টাইল এবং দাড়ি কাটা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিল।

হেলমন্দ প্রদেশের সবথেকে বড়ো সেলুনের মালিক জানিয়েছেন, তাঁকে ফোন করে শাসিয়েছে তালিবানেরা। স্পটতই জানানো হয়েছে, এবার থেকে চুল দাড়ি কাটার আমেরিকান স্টাইল বন্ধ। এদিকে শুধু হেলমন্দই নয়, রাজধানী কাবুলের নাপিতেরাও একই হুমকি পেয়েছেন বলে খবর। এই ফতোয়া ঠিকঠাক মানা হচ্ছে কিনা তা দেখভালের জন্য গুপ্তচরও নিয়োগ করেছে তালিবানরা।

Related Articles

Back to top button