আন্তর্জাতিকনতুন খবর

পাকিস্তান সরকারের অদ্ভুত সিদ্ধান্ত! দেশ বিক্রি হয়ে যেতে পারে মত বিশেষজ্ঞদের

যেকোনো দেশ কে ঠিকমতো পরিচালনা করতে হলে সেই দেশের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতির প্রয়োজন।বর্তমান এ যদি আমরা পাকিস্তান এর কোথায় আসি তাহলে তার অবস্থা খুব খারাপ এর দিকে।অর্থনৈতিক ভাবে দেশ টি কিভাবে বিধস্ত তা পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে।আর এই কারনের জন্য সেখানকার জনগণ তাদের সরকারকেই দায়ী করছে।পাকিস্তান সরকার বর্তমান এক বন্ড জারি করেছে সেখানে পাকিস্তান অর্থনৈতিক দিক থেকে কতটা পিছিয়ে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে।

পাকিস্তান চাইনা ও বিশ্বব্যাংক এর কাছে লোন এ জর্জরিত।সেই লোন পরিশোধ করতে এবং দেশ এর পরিকাঠামো ঠিক ভাবে চালাতে সম্প্রতি একটি ইসলামিক বন্ড জারি করেছে তার জন্য সে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে 1 বিলিয়ন ডলার ঋণ পেয়েছে। শুধু এই নয়, এর সুদের হার 7 থেকে 8 পার্সেন্ট। অর্থাৎ পাকিস্তানকে আগামী দিনে এই লোনের জন্য ব্যাপক ভুগতে হবে তা নিশ্চিত। শুধু তাই নয় এই ঋণ নেবার জন্য পাকিস্তান তার মোটরওয়ে বন্দক রেখেছে।

 

অর্থাৎ আগামীকাল যদি পাকিস্তান সরকার আগামী ৭ বছরে এই বন্ডের টাকা সুদসহ শোধ করতে ব্যর্থ হয়, তাহলে তারা যে মোটরওয়ে বন্ধক রেখেছে তা পাকিস্তান সরকারের সম্পত্তি নয়, নাগরিকদের হাতে। এটি চলে যাবে এবং এর ফলে পাকিস্তানের সার্বভৌমত্বও হুমকির মুখে পড়তে পারে।

স্বাভাবিক সুদের হার 3 শতাংশের কম, এত টাকা দেওয়া কঠিন, সাধারণত যখনই বন্ড ইস্যু করতে আসে, বড় দেশগুলি সেখান থেকে টাকা নেয়। এমন অবস্থায় পাকিস্তান সরকার এক জায়গায় ধার শোধ করতে গিয়ে অন্য জায়গা থেকে টাকা তুলছে যা দেশ কে তারা অচল করে দিচ্ছে এইভাবে দিন এর পর দিন ঋণ এর বোঝা করে দেশ কে দেউলিয়ার দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Back to top button