Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে হিন্দু, ইসাইদের উপর হচ্ছে লাগাতার অত্যাচার! মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টে পর্দাফাঁস ইমরান সরকারের

শেয়ার করুন -

ওয়েবডেস্কঃ সংখ্যালঘুদের নিয়ে পাকিস্তানের (Pakistan) ইমরান খান (Imran Khan) সরকারের মুখোশ খুলে গেল। পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশন (HRCP) অনুযায়ী, ধার্মিক সংখ্যালঘুরা দেশের আইনের আওতায় ধর্ম পালন আর নিজেদের স্বাধীনতা জোটাতে অসমর্থ। দেশে সংখ্যালঘু যেমন হিন্দু আর ইসাইরা ২০১৯ সালে ব্যাপক পরিমাণে জোর করে ধর্মান্তকরণ আর অত্যাচারের সন্মুখিন হয়েছে।

HRCP নিজেদের ২০১৯ এর নিজেদের রিপোর্ট পেশ করে। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, সিন্ধ আর পাঞ্জাব প্রান্তে হিন্দু এবং ইসাই এই দুই সম্প্রদায় ধর্মান্তকরণের অভিযোগ দায়ের করে এসেছে আর পাঞ্জাব প্রান্তে ১৪ বছরের কম বয়সী নাবালিকাদের জোর করে ধর্ম পরিবর্তন করে তাদের বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, সিন্ধ প্রান্তে দুটি হিন্দু পরিবার দাবি করেছে যে, তাদের মেয়েকে বিয়ে করার জন্য অপহরণ করা হয়েছে আর জোর করে ধর্মান্তকরণ করা হয়েছে। যদিও এই ঘটনায় ইসলামাবাদ আদালত জানায় যে, বিয়ের সময় তাঁরা নাবালিকা ছিল না। এমনকি আদালত তাদের নিজের স্বামীর ঘরে চলে যাওয়ারও নির্দেশ দেয়।

রিপোর্ট অনুযায়ী, জানুয়ারিতে পাকিস্তানের হাইকাওর্ট সংখ্যালঘুদের অধিকার বাঁচানোর জন্য আর ধার্মিক এবং সামাজিক সহিষ্ণুতার সংস্কৃতি বজায় রাখার জন্য ২০১৪ সালের সিদ্ধান্তকে লাগু করতে একটি কমিশন গঠন করেছিল। ২২ সদস্যের সংসদীয় সমিতি, যেটিকে সংখ্যালঘুদের জোর করে ধর্ম পরিবর্তন থেকে বাঁচানোর জন্য বানানো হয়েছিল, তাদের এই ধর্মান্তকরণের বিরুদ্ধে আইন বানানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়।