নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ছাত্র পরিষদ প্রতিষ্ঠা দিবসেও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, ডিমভাত নিয়ে কাড়াকাড়ি করে মাথা ফাটাল তৃণমূলীরা

বালুরঘাটঃ গতকাল শনিবার ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠনের প্রতিষ্ঠা দিবস। এই বিশেষ দিন ঘিরে বেশ উন্মাদনা ছিল গোটা দলের মধ্যে। তবে করোনার কারণে গতবারের মতো এবারেও ভার্চুয়ালি এই অনুষ্ঠান করতে হয়েছে। অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা ছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জী এবং তৃণমূল সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জী।

গোটা রাজ্য জুড়েই তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা এই বিশেষ দিন পালন করে। বালুরঘাটে পুরসভা এলাকায় ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে ডিমভাত খাওয়ানোর বন্দোবস্ত করা হয়েছিল। আর সেই খাওয়া-দাওয়াকে কেন্দ্র করেই বেঁধে যায় তুমুল অশান্তি।

ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে তৃণমূলে দুই গোষ্ঠীর তুমুল সংঘর্ষে বেশ কয়েকজনের মাথাও ফেটেছে বলে জানা গিয়েছে। আহতদের বালুরঘাট সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে দলের এই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসার পর অস্বস্তিতে পড়েছে ঘাসফুল শিবির।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, শনিবার অনুষ্ঠান চলাকালীন তৃণমূলের ছাত্র নেতা আর্য অধিকারীর উপর হামলা চালানো হয়। জানা গিয়েছে ডিমভাত খাওয়া নিয়ে দুই গোষ্ঠী একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে জরিয়ে পরে। এরপরই বচসা থেকে শুরু হয় হাতাহাতি আর মারামারি। সংঘর্ষ রুখতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বিশাল পুলিশ বাহিনী। মন্ত্রী বিপ্লব মিত্র ও তৃণমূল নেতা শঙ্কর চক্রবর্তীর গোষ্ঠীর মধ্যে এই সংঘর্ষ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শঙ্করবাবুর গোষ্ঠীর সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন যে, মন্ত্রী বিপ্লব মিত্রের দলবল তাঁদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। অন্যদিকে বিপ্লববাবুর গোষ্ঠীর লোকেরা শঙ্করবাবুর উপর দোষ চাপিয়েছে।

Related Articles

Back to top button