Press "Enter" to skip to content

আমেরিকার গোয়েন্দা রিপোর্টে চাঞ্চল্যকর তথ্য! গোপনে নিহত জওয়ানদের জন্য কাঁদছে চীন

শেয়ার করুন -

স্টাফ রিপোর্টঃ আমেরিকার (US) গোয়েন্দা সংস্থা ভারত-চীনের সেনার মধ্যে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় হওয়া হিংসাত্মক সংঘর্ষের (India-china border faceoff) পর উত্তেজনা নিয়ে নজর গাড়িয়ে বসে আছে। এবার আমেরিকার গোয়েন্দা সংস্থা এই বিষয়ে একটি রিপোর্ট পেশ করেছে, যেখানে চীনের কুকীর্তির পর্দাফাঁস হয়েছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, চীন ভেবেছিল যে তাদের গালওয়ান উপত্যকায় কবজা করার জন্য কোন সংঘর্ষের সন্মুখিন হতে হবে না। কিন্তু তাদের এই চিন্তায় জল ঢেলে দেয় ভারতীয় সেনা। আমেরিকার রিপোর্ট অনুযায়ী, এই সংঘর্ষে ভারতের ২০ জন জওয়ান বলিদান দিলেও চীনের ক্ষতি আরও বেশি হয়েছে। আমেরিকার গোয়েন্দা রিপোর্ট অনুযায়ী চীনের ৩৫ জন জওয়ান এই সংঘর্ষে নিহত হয়েছে। আমেরিকার গোয়েন্দা রিপোর্ট জানাচ্ছে যে, নিজেদের মৃত সৈনিকের জন্য চীন গোপন ভাবে প্রার্থনা সভার আয়োজন করে চোখের জল ফেলছে।

ইউএস নিউজে ছাপা হয়েছে যে, আমেরিকার ইন্টেলিজেন্স রিপোর্ট অনুযায়ী, চীন লাদাখের ওই অঞ্চলে কবজা করার জন্য PLA এর ওয়েস্ট কম্যান্ডের প্রধান জেনারেলকে দায়িত্ব দিয়েছিল। গালওয়ান উপত্যকায় তাঁরা পরিকল্পনামাফিক আগে থেকেই অনেক হাতিয়ার জড় করে রেখেছিল। আর নিজেদের সেনাদের থাকার জন্য কিছু প্রাথমিক ব্যবস্থাও করেছিল। চীনের কম্যান্ডারের কথা মতই চীনের সেনা এই অপারেশনে নামে।

ওই রিপোর্ট বলা হয়েছে যে, ১৫ জুন ভারতের কয়েকজন অফিসার আর জওয়ানদের সাথে কথা বলতে যায় চীন, আরেকদিকে তখন চীনের বাকি সেনা হাতিয়ার নিয়ে প্রস্তুত ছিল। তাদের পরিকল্পনা ছিল ভারতীয় সেনাদের উসকানি দেওয়া, কিন্তু তাঁরা এই কাজে অসফল হয়। যদিও পাশেই ভারতীয় সেনার একটি দল পেট্রোলিং করছিল। তাঁরাও এগিয়ে আসে আর একতরফা বিবাদ হিংসাত্মক সংঘর্ষে বদলে যায়। রিপোর্ট অনুযায়ী, চীনের ওই জেনারেল এর আগে ভিয়েতনাম এর লড়াই আর ২০১৭ সালে ডোকালামে হওয়া গতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছিল।

রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, চীন চাইছিল না ভারতের সাথে হওয়া সংঘর্ষে তাদের মৃত সেনা জওয়ানদের সংখ্যা সামনে আসুক। আর এই কারণে চীন তাদের মৃত জওয়ানদের জন্য গোপনে প্রার্থনার আয়োজন করে। ওই প্রার্থনা সভা এতটাই গোপনীয় ছিল যে, তাঁর সাথে জড়িত সমস্ত ছবি, ভিডিও প্রকাশ করা হয়নি আর আগামী দিনেও হয়ত প্রকাশ করা হবে না। ওই রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, চীন সবথেকে বড় মাথাব্যাথা হল ভারত আর আমেরিকার সুসম্পর্ক। চীন চায় যে ভারত তাদের প্রতিবেশী দেশের সাথে বিবাদে জড়িয়ে পরুক আর আমেরিকার থেকে দূরে থাকুক।

রিপোর্ট অনুযায়ী, একটি পরিকল্পনা অনুযায়ী চীনের বিদেশ মন্ত্রালয় এই সংঘর্ষের জন্য সম্পূর্ণ ভাবে ভারতকে দোষী বলছে। চীনের বিদেশ মন্ত্রালয় লাগাতার বলে যাচ্ছে যে, ভারতীয় সেনা সীমান্ত পার করে চীনের সেনার উপর হামলা চালিয়েছে। আর চীনের সেনা নিজেদের সুরক্ষার জন্য বল প্রয়োগ করেছে। আমেরিকা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে তাঁরা সম্পূর্ণ ভাবে ভারতের পাশে আছে। আমেরিকার বিদেশ মন্ত্রী মাইক পম্পিও এই নিয়ে চীনকে কড়া বার্তাও দিয়েছে। যদিও রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন যে, ভারত-চীন এই বিবাদ কথাবার্তা বলে মিটিয়ে নেবে।