নতুন খবরভারতবর্ষ

LAC-তে ৩০০ সেনা মোতায়েন করল চিন, ড্রাগনকে কড়া জবাব দিতে প্রস্তুতি নিলো ভারত

নয়া দিল্লীঃ সীমান্ত বিবাদ নিয়ে চিন (China) আর ভারতের (INDIA) মধ্যে লাদাখে (LADAKH) উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। সুত্র অনুযায়ী, লাদাখের প্যাংগং আর গলম্বা নদী উপত্যকা সমেত তিনটি জায়গায় ৩০০ জওয়ান মোতায়েন করেছে চিন। এরপর ভারতও চিনকে পাল্টা দিতে সেনা মোতায়েন করেছে।

সুত্র থেকে জানা যায় যে, ভারতীয় স্যাটেলাইট দিয়ে জানা গেছে যে, চিন গলম্বা নদীর আশেপাশে ভারতীয় সীমান্তের পাশে সেনার যাতায়াত এবং সামগ্রী আনার জন্য সড়কের নির্মাণ করেছে। আরেকদিকে, দৌলত বেগ অল্ডি সেক্টরের ৮১ ব্রিগেডের অফিসার আর চিনের অফিসারের মধ্যে বৈঠক হচ্ছে।

দুই পক্ষের স্থানীয় সৈন্য কম্যান্ডারের মধ্যে এখনো পর্যন্ত পাঁচবার বৈঠক হয়ে গেছে, কিন্তু এখনো সমস্যার সমাধান হয়নি। সুত্র থেকে জানা যায় যে, চিনের সেনা এলএসি-তে তিনটি জায়গায় ঘাঁটি গেড়েছে। প্রতিটি জায়গায় ৮০০ থেকে ১ হাজার করে সেনা মোতায়েন আছে।

১০০ এর বেশি তাবু গেড়েছে চিন।

সুত্র থেকে জানা যায় যে, চিনের সেনা গত দুই সপ্তাহে ১০০ এর তাবু গেড়েছে। বাঙ্কার বানানো ম্যাশিনও আনা শুরু করে দিয়েছে চিন। ভারতীয় সেনাও চিনকে কড়া বার্তা দিতে দুই জায়গায় নির্মাণ কার্য শুরু করেছে। ভারতীয় সেনা চিনের থেকে এসব এলাকায় অনেক ভালো পজিশনে আছে। গত এক সপ্তাহে চিনের সেনার তরফ থেকে ভারতীয় সেনার উপর বেশ কয়েকবার হামলার খবর এসেছে। যদিও এই ঘটনার কোন সরকারি ঘোষণা হয়নি।

ভারত আর চিনের উত্তেজনার মধ্যে সেনা প্রধান পৌঁছালেন লাদাখে

আরেকদিকে শনিবার সীমান্ত বিবাদ নিয়ে ভারত-চিনের উত্তেজনার মধ্যে ভারতীয় সেনা প্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নরভানে লাদাখ সফরে যান। নরভানীর সাথে সেনার নর্থ কম্যান্ড এর প্রধান লেফট্যানেন্ট জেনারেল ওয়াইকে জোশি, ১৪ কোর এর প্রধান হরিন্দর সিং আর অন্যান্য বরিষ্ঠ আধিকারিকরা ছিলেন।

সেনা প্রধান গোটা এলাকার প্রতিরক্ষা প্রস্তুতির সমীক্ষা করেন। ওই এলাকায় গলম্বা নদী উপত্যকায় কিছুদিন আগে চিন আর ভারতীয় সেনার মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধেছিল। এর আগে নরভানে জম্মু কাশ্মীরে অনুপ্রবেশের বর্ধিত ঘটনা আর সীমান্তে পাকিস্তানি সেনার বারবার সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘনের কথা মাথায় রেখে গত মাসে কাশ্মীর সফরে গেছিলেন।

Related Articles

Back to top button