Press "Enter" to skip to content

ফাইনাল স্ট্রাইকের জন্য জোরদার প্রস্তুতি ভারতীয় সেনার! কূটনৈতিক, সামরিক দিকে শক্তি ঝুঁকছে ভারত সরকার

শেয়ার করুন -

চীনের বিরুদ্ধে ভারত সরকার লাগাতার নিজের প্রস্তুতি জোরদার করছে। চীন ভারতের সংঘর্ষ এর সুযোগ উঠিয়ে পাকিস্তানও সীমান্তে উপদ্রব শুরু করেছে। যদিও হিন্দের সেনা প্রবল একশন মুডে আছে। সরকার সেনার হাত খুলে দিয়ে কূটনৈতিক পরিস্থিতি মজবুত করছে। একই সাথে পুরো ঘটনাবলির উপর নজর রাখছে।

রক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং রুশের উদ্যেশে যাত্রা করেছেন। যেখানে রাশিয়াকে ভারতের পক্ষে নেওয়ার উপর বার্তলাপ চলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। বিশ্বজুড়ে মিডিয়া চীন সেনার মহিমামন্ডন করলেও চীনের ২০% সেনা শারীরিকভাবেই দুর্বল। তাইওয়ানের কথায় চীনের সেনা কাগজের সিংহ অর্থাৎ কাগজে কলমে বিশাল মনে হলেও ফিল্ডে তেমন শক্তিশালী নয়।

আর এর প্রমাণ ১৫ জুন ভারতীয় সেনা স্পষ্টভাবে বুঝতে পেরেছে। ভারতের মাত্র ৫০০ জন সেনা চীনের ২৫০০ সৈনিককে অস্ত্র ছাড়াই পরাস্ত করেছে এবং প্রায় ৪০ জনের লাশ তুলে নিয়ে যেতে বাধ্য করেছে। সব মিলিয়ে ভারত চীনের ক্ষমতার আভাস পেয়ে গেছে।

প্রস্তুতির খতিরে ভারত ৪৫ হাজার সেনা, যুদ্ধবিমান ও ট্যাঙ্ক সীমান্তে পাঠিয়েছে। এখন খবর আসছে, চীনের সেনাকে যোগ্য জবাব দিতে মাউন্টেন ফোর্সকে মোতায়েন করা হয়েছে। সব মিলিয়ে সামরিক দিক থেকে ভারত সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত। এর মধ্যে জাপান ও রুশ নিজের নিজের সীমান্তে চাপ বৃদ্ধি করলে ভারতের জন্য কাজ সহজ হয়ে উঠবে।

চীনের নেতা মাউ এর প্ল্যানিং অনুযায়ী, চীন তিব্বত থেকে ধীরে ধীরে লাদাখ, ভুটান, সিকিম, অরুণাচল প্রদেশ ও নেপালের দিকে অগ্রসর হবে। চীনের বর্তমান সরকার সেই প্ল্যানিং এর উপরেই কাজ করছে। তাই এখন চীনকে না আটকালে ভবিষ্যতে এই কাজ আরো কঠিন হয়ে উঠবে। যার জন্য সোশ্যাল অনেকে বলেছেন চীনের উপর ফাইনাল স্ট্রাইক করে অক্সাই চীন ফিরিয়ে নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে।