নতুন খবরভারতবর্ষ

ভারত গড়ল নতুন ইতিহাস! পেছনে ফেলে দিল বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশকে

ভারত (India) দেশকে ছোট করে দেখা ইউরোপীয় দেশ গুলি এবং পাশ্চাত্য মিডিয়ার একটা অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তবে এই অভ্যাস যে পাশ্চাত্য মিডিয়াকে পাল্টে ফেলতে হবে তার স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে ভারত। আসলে বিশ্বজুড়ে কোনো সংকট তৈরি হলেই পাশ্চাত্য মিডিয়াগুলি ভারতের পেছনে লেগে পড়ে। কিভাবে ভারতকে নাম বদনাম করা যায় তার প্রয়াস করতে দেখা যায় ইউরোপের দেশগুলিকে। এখন পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করেছে তথা ভারত একের পর এক রেকর্ড তৈরি করে বিশ্বকে চমকে দিতে শুরু করেছে। সম্পতি ভারত এমন কাজ করে দেখিয়েছে যা বিশ্বের তথাকথিত উন্নত দেশগুলি করে উঠতে পারেনি।

২১ অক্টোবর ভারতে কোভিড -১৯ ভ্যাকসিনেশন কভারেজ ১০০ কোটি জনসংখ্যার একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক অতিক্রম করেছে। এক‌ই সঙ্গে চীনের পরে ভারত দ্বিতীয় দেশ হয়ে উঠেছে যেখানে এক বিলিয়ন জনসংখ্যা ভ্যাকসিন পেয়েছে।ভারতের কৃতিত্বের প্রশংসা করে, WHO-এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার আঞ্চলিক দিকনির্দেশক একটি বিবৃতি জারি করেছে।

ভারতকে অভিনন্দন জানিয়ে ড. পুনম ক্ষেত্রপাল সিং বলেছেন, “শক্তিশালী রাজনৈতিক নেতৃত্ব, আন্ত -ক্ষেত্রীয় ব্যবস্থাপনা‌, সমগ্র স্বাস্থ্যব্যবস্থা ও সামনের সারির কর্মীদের নিবেদিত প্রচেষ্টা ছাড়া অল্প সময়ের মধ্যে এই অসাধারণ কৃতিত্ব সম্ভব ছিল না”। ড. সিং বিশ্বব্যাপী কোভিড ভ্যাকসিন সরবরাহের জন্য ভারতের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেছেন।

বিশ্বজুড়ে মহামারী মোকাবিলায়, প্রধানমন্ত্রী মোদী বিশ্বের প্রতি ভারতের দায়িত্ব সম্পর্কেও ওয়াকিবহাল ছিলেন। ভারত বিশ্বের প্রতিটি দেশে কোভিড -১৯ ছড়িয়ে পড়ায় সাহায্যের জন্য ভারতের দিকে তাকিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী মোদী কাউকে নিরাশ করেননি এবং ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি ভ্যাকসিন দিয়ে কোভিড -১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাদের সাহায্য করার অঙ্গীকার করেছিলেন।

ভারত সরকার “ভ্যাকসিন মৈত্রী” উদ্যোগ চালু করেছে, বিশ্বব্যাপী দেশগুলিতে কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন সরবরাহের জন্য এটি একটি মানবিক উদ্যোগ। এই উদ্যোগের মাধ্যমে, ভারত সরকার ৯ মে, ২০২১ সাল পর্যন্ত ৯৫ টি দেশে প্রায় ৩.৩ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন পৌঁছে দিয়েছে। টিকাকরণ কার্যক্রম শুরু হওয়ার ১০ মাসেরও কম সময়ে, ভারত তার জনসংখ্যার ৭২% শতাংশেরও বেশি জনসংখ্যাকে কমপক্ষে কোভিড -১৯ ভ্যাকসিনের একটি ডোজ টিকা দিতেও সক্ষম হয়েছে। এই টিকাকরণ কর্মসূচি ভারতের সাফল্যের মুকুটে নয়া পালক যোগ করেছে।

Related Articles

Back to top button