নতুন খবরভারতীয় সেনা

কারগিলে পাকিস্তানকে শিক্ষা দেওয়া মাউন্টেন ফোর্স মোতায়েন হল লাদাখে, চীনকে দেবে যোগ্য জবাব

নয়া দিল্লীঃ লাদাখ (Ladakh) সীমান্ত নিয়ে চীন (China) আর ভারতের (India) মধ্যে উত্তেজক পরিস্থিতি কায়েম রয়েছে। লাদাখে ভারতীয় সেনাদের হাই অ্যালার্টে রাখা হয়েছে। আর এর মধ্যে ভারত ৩ হাজার ৪৮৮ কিমি দীর্ঘ LAC তে মাউন্টেন ফোর্সকে মোতায়েন করেছেন। এই সেনা দল উঁচু উঁচু পাহাড় থেকে শত্রুদের উপরে নজর রাখে। শোনা যাচ্ছে যে, চীনের সেনাকে যোগ্য জবাব দিতে মাউন্টেন ফোর্সকে (mountain force) মোতায়েন করা হয়েছে।

সীমান্তে মোতায়েন এই মাউন্টেন ফোর্স গেরিলা যুদ্ধে মহারত হাসিল করেছে। খারাপ থেকে খারাপ পরিস্থিতিতে শত্রুদের শিক্ষা দিয়ে এই ফোর্সের জুরি মেলা ভার। বিশেষ করে এদের পাহাড়ে লড়াই করার জন্য স্পেশ্যাল ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। ১৯৯ এর কার্গিল যুদ্ধে পাকিস্তানি সেনাদের চরম শিক্ষা দিয়েছিল এই মাউন্টেন ফোর্স। কিছুদিন আগে চীনের এক্সপার্ট এই মাউন্টেন ফোর্সদের নিয়েই বলেছিল যে, বিশ্বের সবথেকে ভয়ানক সেনা আছে ভারতের কাছে। উনি এমনও বলেছিলেন যে, এই সেনা আমেরিকা, ব্রিটেন সমেত বিশ্বের শক্তিধর দেশের কাছেও নেই।

একটি ইংরেজি সংবাদের সাথে কথা বলার সময় প্রাক্তন এক সেনা প্রধান বলেন, মাউন্টেন ফোর্সের লক্ষ্য অচুক হয়। এই ফোর্সে উত্তরাখণ্ড, লাদাখ, অরুণাচল প্রদেশ আর সিকিমের জওয়ানদের জায়গা দেওয়া হয়। চীনের অংশে থাকা কিছুটা সমতল কিন্তু ভারতের সীমান্ত খুবই দুর্গম আর পাহাড়ের শৃঙ্গে অবস্থিত। আর এই কারণে এই উঁচু উঁচু পাহাড়ে সেনার জন্য এগিয়ে যাওয়া খুব মুশকিলের ব্যাপার। কিন্তু মাউন্টেন ফোর্স সহজেই এই কাজ করতে পারবে।

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীন আর ভারতের সেনার মধ্যে সংঘর্ষের পর চীন লাগাতার শান্তি আর কথাবার্তার মাধ্যমে সমস্যাকে সমাধান করার কথা বলছে। যদিও, তিব্বত বর্ডারে লাগাতার চীনের সেনা যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়ে ব্যস্ত। সেখানে চীন আরও বেশি করে জওয়ান মোতায়েন করছে। এই নিয়ে ভারতের ডিফেন্স এক্সপার্ট এসপি সিনহা বলেন, বিবাদ এত তাড়াতাড়ি মিটবে না। চীন ভারতের জবাবের ভয়ে আছে। আর এই জন্যই তাঁরা লাদাখের বর্ডারে বেশি করে সৈন্য মোতায়েন করছে।

Related Articles

Back to top button