নতুন খবরভারতবর্ষ

হাতে মাত্র আর কয়েক মাস, মেটাতে হবে ১৮ লক্ষ কোটি টাকার ঋণ, নাহলে বড় বিপদে পড়বে ভারত

নয়া দিল্লিঃ আজ ভারত অনেক উন্নতি করছে এবং জনগণও কিছুটা হলেও স্বস্তিতে আছে। অন্যদিকে কেন্দ্র বৈদেশিক মুদ্রার ভাণ্ডারের পরিপ্রেক্ষিতে দিন দিন ধনী হচ্ছে এবং কোথাও না কোথাও বিষয়গুলি খুব ইতিবাচক হয়ে উঠছে বলে মনে হচ্ছে। কিন্তু এমন অনেক কিছু আছে যা হঠাৎ করেই নাগরিকদের সামনে চলে আসে এবং চিন্তা বাড়িয়ে তলে, যদিও কেন্দ্রের সামনে সবকিছুই খোলামেলা।  প্রসঙ্গত, এই বছরটি ভারতের জন্য ভারী বোঝায় পূর্ণ হতে চলেছে।

আজ থেকে প্রায় এক দশক আগে কেন্দ্র বিভিন্ন দেশ, সংস্থা থেকে বন্ড ইস্যু করে বাজার থেকে প্রচুর অর্থ সংগ্রহ করেছিল এবং এখন তাদের শোধ করার সময় চলে এসেছে। ২০২২ তাদের অর্থপ্রদানের শেষ বছর এবং অনুমান অনুযায়ী এই বছর ভারতকে মোট ২৫৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বা তার সমতুল্য অর্থ প্রদান করতে হবে। আপনি যদি ভারতীয় মুদ্রায় দেখেন তবে এটি প্রায় ১৮ লাখ কোটি টাকা।

ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এখনও পর্যন্ত ৬০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি, কিন্তু এখন এই বছর ভারতকে প্রায় ২৫৬ বিলিয়ন ডলারের ঋণ পরিশোধ করতে হবে, যার একটি বড় অংশ ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থেকে দিতে হবে। এই বছরের শেষ নাগাদ ভারতের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রায় ৪০০ বিলিয়নে পৌঁছাতে হবে।

যদিও এর কোন দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব নেই তবে এটি কিছু সময়ের জন্য ভারতীয় টাকার মূল্য হ্রাসের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। তবে এটি কয়েক মাসের মধ্যে আবার স্থিতিশীলতায় ফিরে আসবে বলে আশা করছে ওয়াকিবহাল মহল। যেহেতু ভারত একটি স্থিতিশীল অর্থনীতির দেশ, সেহেতু ভারত আবার নিজেদের বৈদেশিক মুদ্রার ভাণ্ডার বাড়িয়ে নেবে। এখন ভারত যাতে কোনোভাবেই ঋণ খেলাপি না হয়ে ওঠে, এই কারণে টাকা পরিশোধ করা খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে।

এই অর্থ পরিশোধের পর কেন্দ্র আন্তর্জাতিক বাজার থেকে ঋণ বা বিনিয়োগ ইত্যাদির মাধ্যমে আরও বেশি অর্থ সংগ্রহ করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে, যাতে যা উন্নয়নমূলক কাজ চলছে তাতে যেন কোনো প্রভাব না পড়ে।

Related Articles

Back to top button