Press "Enter" to skip to content

চীনকে শিক্ষা দিতে রাশিয়ার সাহায্য নিতে চলেছে ভারত, পুতিনের দেশ থেকে আসবে ৩৩ টি দুর্ধর্ষ লড়াকু বিমান

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ পূর্ব লাদাখে (Ladakh) চীনের (China) সাথে চলা বিবাদের মধ্যে ভারতীয় বায়ু সেনা (Indian Air Force) সরকারের কাছে ৩৩ টি লড়াকু বিমান প্রাপ্ত করার প্রস্তাব পেশ করে। ANI এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই ৩৩ টি লড়াকু বিমানের মধ্যে ২১ টি মিগ-২৯ আর ১২ টি শুখোই 30MKIs আছে। সরকারি সুত্র ANI কে জানায় যে, বায়ুসেনা অনেকদিন ধরেই এই পরিকল্পনায় কাজ করছে, কিন্তু এবার তাঁরা এই প্রক্রিয়াকে সম্পন্ন করার জন্য তৎপর হয়েছে। আর ৬ হাজার কোটি টাকার থেকেও বেশি এই প্রক্রিয়াকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রালয়ের সামনে আগামী সপ্তাহের উচ্চ স্তরীয় বৈঠকে পেশ করা হবে।”

সুত্র জানান, এই প্রস্তাবে ১২ টি শুখোই 30MKIs এর নাম আছে। যেটি বিভিন্ন দুর্ঘটনায় বায়ুসেনা দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত বিমান গুলোকে বদলানোর জন্য আবশ্যক। ভারত আলাদা আলাদা ব্যাচে ১০ থেকে ১৫ বছর অবধিতে ২৭২ টি Su-30 ফাইটার জেটের অর্ডার দিয়েছিল।

ভারতীয় বায়ুসেনা ২১ টি মিগ ২৯ বিমান কেনারও পরিকল্পনা নিয়েছে। মিগ-২৯ হল মিগ-২১ এর আপডেট ভার্সন। এই বিমান মিগ-২১ এর থেকে অনেক উন্নত এবং নির্ভরশীল। আরেকদিকে চীনের সাথে বাড়তি উত্তেজনার মধ্যে বায়ুসেনা চীনের সীমান্ত লাগোয়া সমস্ত এয়ারবেস গুলোকে অ্যাক্টিভেট করে দিয়েছে। সুত্র অনুযায়ী, বায়ুসেনার লড়াকু বিমান শুখোই এবং মিরাজ-২০০০ কে চীন সীমান্তের পাশে এমার্জেন্সির জন্য মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গতকালই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, ভারত ছাড়ার পাত্র নয়। আর শহীদ জওয়ানদের বলিদান ব্যর্থ হতে দেবেনও না তিনি। আর সেই সূত্রেই লাদাখে আরও সেনা মোতায়েন করছে ভারত। আরেকদিকে ভারত সরকারের সমস্ত কোম্পানি থেকে চীনের সামগ্রী এবং চীনের কোম্পানি গুলোকে বহিষ্কার করার অভিযানও শুরু হয়েছে। বিএসএনএল এবং ভারতীয় রেল চীনকে বহিষ্কার করার পথে নেমে পড়েছে।