Press "Enter" to skip to content

সীমান্তে অনুপ্রবেশ ব্যর্থ করে পাকিস্তানের দুই সেনাকে খতম করলো ভারতীয় সেনা, গুরুতর আহত আরও চার

শেয়ার করুন -

পাকিস্তানের (Pakistan) তরফ থেকে যুদ্ধ বিরতি (Cease Fire) লঙ্ঘনের আড়ালে সোমবার সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশের চেষ্টা ব্যর্থ করে দিলো ভারতীয় সেনা (Indian Army)। পাকিস্তানের ফায়ারিংয়ে ভারতের দুই জওয়ান শহীদ হন। আর ভারতের পালটা আক্রমণে পাকিস্তানের দুই জওয়ান খতম হয়েছে। এছাড়াও চার পাক সেনা আহত হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ভারতীয় সেনার পালটা হানায় পাকিস্তানের অনেক কয়েকটি সেনা ছাউনিও ধ্বংস হয়ে গেছে। সেনার তরফ থেকে পাকিস্তানের প্রতিটি গুলির মোক্ষম জবাব দেওয়া হয়েছে।

সেনার মুখ্যপাত্র অনুযায়ী, পালম্বালা সুন্দরবিনি সেক্টরের কেরী বট্টল এলাকায় সোমবার বিকেলে গতিবিধি নজরে আসে। সেনা ঠিক করে দেখলে বুঝতে পারে যে, জঙ্গিরা অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে। এরপর সেনা তাঁদের উপর গুলি চালায়, এরপর জঙ্গিদের ভারতে ঢোকানোর জন্য পাকিস্তান ভারতের ছাউনি গুলো লক্ষ্য করে গুলি চালাতে থাকে। পাকিস্তানের চালানো গুলিতে সেনার এক জওয়ান শহীদ হয়ে যান। যদিও সুত্র থেকে জানা যায় যে, পাকিস্তানের ব্যাটের হামলায় ভারতীয় জওয়ান শহীদ হন।

উত্তর কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় সোমবার পাকিস্তানের তরফ থেকে প্রচুর গোলাগুলি করা হয়। পাকিস্তানের এই হামলায় ৬ মারাঠা লাই এর মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা সীজে গণপতি শহীদ হন। গুরেজ সেক্টরের বখতুর এলাকায় পাকিস্তান রবিবার দুপুর সাড়ে তিনটে নাগাদ যুদ্ধ বিরতি লঙ্ঘন করে। পাকিস্তানের এই ফায়ারিংয়ে ভারতীয় গ্রামের কয়েকটি ঘরে ক্ষয়ক্ষতি হয়। সোমবার সকালে পাকিস্তানের গুলি থামলেও দুপুরে আবার শুরু হয়। পাকিস্তান এই কাজ মধ্যরাত পর্যন্ত জারি রাখে।

পাকিস্তানি সেনা সোমবার মণ্ডের সাব ডিভিশননে নিয়ন্ত্রণ রেখার কৃষ্ণা ঘাঁটি, মনকোট সেক্টরে ফায়ারিং করে। সেনার ছাউনির সাথে সাথে গ্রাম্য এলাকা গুলোকেও নিশানা বানায় পাক সেনা। সেনার তরফ থেকে জবাবি ফায়ারিংয়ে দরাশর খান এলাকায় দুই পাক সৈনিক খতম হয়। আর চারজন গুরুতর আহত হয়।