নতুন খবরভারতবর্ষ

কার্গিল যুদ্ধের সময় ভারতকে নেভিগেশন সিস্টেম দেয়নি আমেরিকা! তাই ভারত বানিয়ে নিল নিজস্ব নেভিগেশন NAVIC

আরো একবার এমন কাজ করেছে যা পুরো () তথা দেশবাসীকে গর্বিত করেছে। আসলে নিজস্ব সিস্টেম লঞ্চ করেছে যা বর্তমানে এন্ড্রোয়েড স্মার্ট ফোনে থাকা সিস্টেমের জায়গা নিতে চলেছে। এই সিস্টেমের নাম দিয়েছে নাবিক বা নাভিক ( )। এই সিস্টেমযুক্ত এন্ড্রোয়েড ফোনও খুব তাড়াতাড়ি বাজারে আসতে চলেছে। গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নঃ এই যে সিস্টেম থাকা সত্ত্বেও ভারতের নিজস্ব সিস্টেমের কেন প্রয়োজন পড়লো?

আসলে GPS সিস্টেম সম্পূর্ন আমেরিকার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। দ্বিতীয় এই সিস্টেমগুলির দুটি ভাগ থাকে। একটা ভাগ জন সাধারণের জন্য আরেকটা ভাগ গোপনীয় কাজের জন্য যা সেনা, বিজ্ঞানীরা ব্যাবহার করতে পারে। স্মরণ করিয়ে দি, কার্গিল যুদ্ধের সময় ভারত আমেরিকার কাছে GPS সিস্টেমের গোপন প্রযুক্তি ব্যাবহার করতে চেয়েছিল। কিন্তু সেই সময় স্পষ্ট ভাষায় ভারতকে সিস্টেম ব্যাবহার করতে দিতে অস্বীকার করেছিল।

এখন ভারত নিজের নেভিগেশন সিস্টেম বানিয়ে ফেলতে সক্ষম হয়েছে। যার উপর আমেরিকার কোনো নিয়ন্ত্রণ থাকবে না। শুধু এই নয়, ভারতে GPS ৩০ মিটার অবধি সঠিকতা দিতে পারে, অন্যদিকে NAVIC ৫ মিটার অবধি সঠিকতা দিতে পারবে। অর্থাৎ ভারতীয়রা NAVIC ব্যাবহার করে অনেক বেশি সুবিধা নিতে পারবে। GPS শুধুমাত্র L ব্যান্ডের উপর কাজ করতে পারে। অন্যদিকে NAVIC সিস্টেম S ব্যান্ড ও L ব্যান্ড এর উপর কাজ করতে সক্ষম।

২০১২ সালে আমেরিকা GPS সিস্টেমের অপব্যাবহার করেছিল। ফলে ভারতের ব্রমহোস মিসাইল টেস্ট ব্যার্থ হয়েছিল। এই সমস্থ দৃষ্টি কোন থেকে NAVIC কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা আর বলার বাকি কিছু থাকে না।
ইসরো NAVIC পুরোপুরি ভারতে বিকশিত হয়েছে। এই সিস্টেমের মাধ্যমে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের ভৌগলিক অবস্থান সনাক্ত করা যায়। বর্তমানে দেশের সমস্ত ডিভাইস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জিপিএস নেভিগেশন সিস্টেমের মাধ্যমে সংযুক্ত রয়েছে। আপনার স্মার্টফোন বা স্মার্ট ঘড়ি বা অবস্থান ট্র্যাকার, পজিশন ট্র্যাকিং কেবল GPS এর মাধ্যমেই করা হয়। এই নতুন বিকল্প নেভিগেশন সিস্টেমের বিকাশের পরে, ভারত এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছাতে পেরেছে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।

Back to top button
Close