Press "Enter" to skip to content

পরমাণু ক্ষমতা সম্পন্ন ছয়টি ডুবোজাহাজ যুক্ত করে মারক ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চলেছে নৌসেনা

শেয়ার করুন -

নৌসেনা নিজের মারক ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য ২৪ টি ডুবো জাহাজ যুক্ত করার পরিকল্পনা করছে। ২৪ টির মধ্যে ১৮ টি পারম্পরিক আর ছয়টি পরমাণু হামলা করার জন্য ডুবো জাহাজের একটি বড় স্কোয়াড্রান তৈরি করার পরিকল্পনা করছে। এই তথ্য প্রতিরক্ষা মামলায় স্থায়ী সমিতি সংসদে শীতকালীন অধিবেশনে পেশ করা একটি রিপোর্টে দেয়।

রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, নৌসেনা ১৮ টি পারম্পরিক আর ছয়টি এসএসএন ( পরমাণু হামলা করতে সক্ষম ) ডূবো জাহাজের তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়েছে। নৌসেনায় এখন ১৫ টি পারম্পরিক ডুবো জাহাজ আছে, আর একটি পরমাণু ক্ষমতা সম্পন্ন ডুবো জাহাজ লিজে নেওয়া আছে।

ইন্ডিয়ান নেভি আরিহান্ট ক্লাসের এসএসবিএন ছাড়াও ছয়টি নিউক্লিয়ার অ্যাটাক সাবমেরিন বানানোর পরিকল্পনা নিয়েছে। আরিহান্ট একটি পরমাণু ক্ষমতা সম্পন্ন এসএসবিএন ডুবোজাহাজ, এই ডুবো জাহাজে নিউক্লিয়ার মিসাইল সিস্টেম যুক্ত আছে। নিউক্লিয়ার অ্যাটাক সাবমেরিনের নির্মাণ দেশেই করার পরিকল্পনা চলছে, আর এর জন্য প্রাইভেট কোম্পানি গুলোর সাথে কাজ করা হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

বর্তমানে নৌসেনা রাশিয়া কির্লো বার্গ, জার্মানির এচডিডাব্লিউ আর পারম্পরিক ডোমেনে নবীনতম ফ্রেঞ্চ স্করপিয়ন শ্রেণীর ডুবো জাহাজ ব্যাবহার করছে। আর পরমাণু ডুবো জাহাজ হিসেবে নৌসেনা রাশিয়ার থেকে একটি আইএনএস চক্র ডুবো জাহাজ লিজে নিয়ে চালাচ্ছে। নৌসেনার সংসদীয় সমিতি জানায়, গত ১৫ বছরে মাত্র দুটো ডুবো জাহাজকে যুক্ত করা হয়েছে নৌসেনায়। আর বাকি ডুবো জাহাজ গুলো ১৭ থেকে ৩১ বছরের পুরনো।