Press "Enter" to skip to content

রেলওয়ের সম্পত্তি নষ্ট করা পশ্চিবঙ্গের লুঙ্গিবাহিনীর জন্য খারাপ খবর! যোগীর নিয়মেই উপদ্রবীদের থেকে নেওয়া হবে ক্ষতিপূরণ।

শেয়ার করুন -

নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে দেশজুড়ে ভিন্ন ভিন্ন স্থানে যে আন্দোলনের পরিস্থিতি উৎপন্ন হয়েছিল তা কিছু স্থানে হিংসার রূপ নিয়েছিল। CAA এর প্রতিবাদের নামে পশ্চিমবঙ্গ সহ বেশকিছু জায়গায় কট্টরপন্থীরা উৎপাত করেছিল। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে লুঙ্গিবাহিনীর উৎপাত সবার চোখ কপালে তুলেছিল। লুঙ্গি বাহিনীর উৎপাতের ফলে রেলওয়ের প্রায় ৮০ কোটি টাকা নষ্ট হয়েছে। কে বা কারা রেলের সম্পত্তি নষ্ট করেছে তা স্পষ্ট না হলেও যে সমস্থ ভিডিওগ্রাফি সামনে এসেছে তা থেকে সম্পূর্ণ দায় লুঙ্গিবাহিনীর উপর পড়েছে। এখন রেলওয়ের (indian Railway) তরফ থেকে বলা হয়েছে, যারা ক্ষতি করেছে তাদের চিহ্নিত করে ক্ষতির ভরপাই করা হবে।

লুঙ্গি বাহিনীর উপদ্রবে কমপক্ষে ৮০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে রেলের। এখন সমস্থ ক্ষতিপূরণ উপদ্রবীদের থেকে নেওয়া হবে। CAA এর বিরোধের নামে উপদ্রবীরা পশ্চিমবঙ্গে সবথেকে বেশি ক্ষয়ক্ষতি করেছিল। রেল বোর্ডের সভাপতি বিনোদ কুমার যাদব বলেন, CAA এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শনের সময় প্রায় ৮০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। যার মধ্যে ৭০ কোটি পূর্ব রেলওয়ে আর ১০ কোটি নর্থ ফ্রন্টিয়ার রেলের ক্ষতি হয়েছে।

জানিয়ে দি, উত্তরপ্রদেশে যারা উপদ্রব চালিয়েছিল তাদের CCTV ফুটেজ ও ভিডিওগ্রাফির মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে। যারপর যোগী প্রশাসন তাদের থেকে ক্ষয় ক্ষতির ভরপাই করার কাজ শুরু করেছে। বহু উপদ্রবীদের বাড়িতে নোটিস পাঠানো হয়েছে। কাউকে ১ লক্ষ ৭০ হাজার আবার কাউকে ৩ লক্ষ টাকার নোটিস পাঠানো হয়েছে। যাদের UP পুলিশ চিহ্নিত করতে পারেনি তাদের চিহ্নিত করার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

এখন এই একই পদ্ধতি অবলম্বন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে। যার দরুন বড়ো সমস্যায় পড়তে চলেছে লুঙ্গি বাহিনী। রেল বোর্ডের সভাপতি বিনোদ কুমার যাদব জানিয়েছেন, এমন কিছু মানুষ আছে যাদের পরিচয় পাওয়া গেছে ভিডিওর মাধ্যমে তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।