টাকা পয়সানতুন খবরভারতবর্ষ

ঘরের মধ্যে রেখে দিন এই কয়েকটি জিনিস, কোনদিনও হবে না টাকার অভাব! দূর হবে সব সমস্যা

কলকাতাঃ বর্তমান সময়ে ভালোভাবে জীবনধারণের জন্য অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হল টাকাপয়সা। যেটা ছাড়া টিকে থাকা তো দূর, হবে না খাদ্যের সংস্থানও। যেই কারণে প্রত্যেকেই অর্থ উপার্জনের জন্য পরিশ্রম করতে থাকেন।

কিছু মানুষের স্বল্প প্রচেষ্টাতেই মা লক্ষ্মী সদয় হন আবার কেউ কেউ যতই পরিশ্রম করুন না কেন টাকা তাঁদের কাছে থাকতেই চায় না। জ্যোতিষ শাস্ত্রের মতে, বাড়ির বাস্তুদোষের কারণে মা লক্ষ্মী রুষ্ট হন। যার ফলেই ঘটতে থাকে অর্থসংকট। তবে, খুব সহজেই সমাধান করা যায় এই বাস্তুদোষের। চারটি প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বাড়িতে রাখলেই কেটে যায় এই দোষ। পাশাপাশি, বাড়িতে অর্থাগমও ঘটে। বর্তমান প্রতিবেদনে জেনে নিন সেই সম্পর্কে।

১. ঘোড়ার নাল: ঘোড়ার নালে লেবু-লঙ্কা সুতো দিয়ে ঝুলিয়ে ঘরের দরজার মাঝখানে রেখে দিতে হবে। এতে বাড়িতে কারুর নজর পড়েনা। পাশাপাশি, এটা বাড়িকে সুরক্ষিত রাখে এবং সর্বদা সুখ-শান্তি বজায় রাখতেও সাহায্য করে। এছাড়াও, এটি বাড়ি থেকে অলক্ষ্মীকে দূর করে দেয়।

২. উইন্ড চাইম: ঘরে উইন্ড চাইম বসানো থাকলে তা ইতিবাচক শক্তির যোগাযোগ বাড়ায়, যা সরাসরি আমাদের ভাগ্যকে প্রভাবিত করে। উইন্ড চাইমের আওয়াজ ঘরের বাস্তু দোষ দূর করে এবং ঘর থেকে নেতিবাচক শক্তি দূর করে।

৩. চাইনিজ কয়েন: ফেং শুইতে চাইনিজ কয়েনকে বিশেষ প্রাধান্য দেওয়া হয়। তিনটি কয়েনকে একটি লাল সুঁতো দিয়ে বেঁধে ঘরে রাখলে ঘরের সমস্ত অশুভ শক্তি দূর হয়। এখন প্রশ্ন উঠতে পারে যে শুধু তিনটি মুদ্রাই ব্যবহৃত হবে কেন? এর উত্তর হল তিনটি মুদ্রা ত্রিভুবনের প্রতীক হিসাবে বিবেচিত হয়।

৪. লাফিং বুদ্ধ: লাফিং বুদ্ধ বাড়ির জন্য অত্যন্ত শুভ বলে মনে করা হয়। তবে, মনে রাখতে হবে যে, বুদ্ধের মূর্তিটি যেন আড়াই ইঞ্চির বেশি না হয়। এর থেকে বড় কোনো মূর্তি ঘরে রাখলে বাস্তু দোষ হয়। লাফিং বুদ্ধকে সমৃদ্ধির প্রতীক মনে করা হয়। আপনার বাড়িতে উত্তর-পশ্চিম দিকে লাফিং বুদ্ধ রাখুন। এতে আপনার কখনোই টাকার অভাব হবে না।

Related Articles

Back to top button