Press "Enter" to skip to content

হনুমানজি যদি রুদ্ররূপ ধারণ করেন, তাহলে নেপাল উধাও হয়ে যাবে! কেপি শর্মা ওলিকে যোগ্য জবাব দিলেন ইকবাল আনসারি

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলির (KP sharma Oli) ভগবান রামকে নিয়ে দেওয়া বিতর্কিত বয়ান নিয়ে বাবরি মসজিদের পক্ষকার ইকবাল আনসারি (Iqbal Ansari) পাল্টা জবাব দিয়ে বলেন, যদি হনুমানজি রেগে যান, তাহলে নেপাল জানতেও পারবে না যে গেলো কোথায়। ইকবাল আনসারি অযোধ্যাকে ভগবান শ্রীরামের জন্মস্থান হিসেবে স্বীকৃতি না দেওয়া নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে জবাব দিয়ে বলেন, ‘গোটা বিশ্বের মানুষ অযোধ্যার সন্মান করে, আর এটা আজ থেকে না, যুগ যুগ ধরে চলে আসছে। অযোধ্যা ধর্মের নগরী আর এখানে সমস্ত ধর্ম এবং জাতীর দেবী-দেবতা বিরাজমান আছেন।”

উনি বলেন, অযোধ্যার যে মহত্ব আছে, সেটা নেপালের প্রধানমন্ত্রী জানেন না। অযোধ্যায় ভগবান রামের সাথে সাথে হনুমান জিও বিরাজমান আছেন। এবার যদি হনুমানজি রেগে যান, তাহলে নেপাল জানতেও পারবে না যে তাঁরা কোথায় গেলো।

আনসারি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ওলি নিজের ধর্ম নিয়েই জানেন না। নেপালে হিন্দু বিরোধী কার্যকলাপ চলছে। উনি অযোধ্যায় কোন দিনও এসেছিলেন যে, উনি অযোধ্যা নিয়ে জানবেন। উনি যদি অযোধ্যা আসতেন, তাহলে জানতে পারতেন যে এখানে দেবতারা বাস করেন। ভগবান শ্রীরাম আর অযোধ্যাকে মিথ্যে বলার পরিণাম খুব খারাপ হবে।”

উল্লেখ্য, নেপালের প্রধানমন্ত্রী ওলি আজকাল ভারত বিরোধিতায় মত্ত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ওলি দুদিন আগে বলেছিলেন যে, ভারত সাংস্কৃতিক অতিক্রমণের জন্য নকল অযোধ্যা বানিয়েছে। আসল অযোধ্যা নেপালে আছে। ওলি প্রশ্ন করে বলেন, সেই সময় আধুনিক পরিবহণ ছিল না, আর না যোগাযোগ ব্যবস্থা ছিল, তাহলে রাম জনকপুর কি করে এসেছিল? ওনার এই বয়ানের পর ভারতের ধর্মগুরুরাও ওনাকে কড়া আক্রমণ করেছেন।