নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

মুসলিম ভোটের জন্যই মমতা ব্যানার্জী নাগরিকতা সংশোধন আইনের বিরোধিতা করছেনঃ জেপি নাড্ডা

ভারতীয় জনতা পার্টির (BJP) কার্যকারী সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda) আজ নাগরিকতা আইন সংশোধন আইনের সমর্থনে কলকাতায় এক বিশাল র‍্যালির আয়োজন করেছিলেন। এই র‍্যালির পর উনি একটি জনসভা করেন, সেখান থেকে উনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী (Mamata Banerjee) শুধু ভোট ব্যাঙ্কের রাজনীতির জন্য নাগরিকতা আইনের বিরোধিতা করছেন। আজকের আমাদের সভায় জনসমাগম দেখা উচিৎ ওনার, উনি এই সভা দেখলেই বুঝবেন যে, মানুষ ওনাকে খারিজ করে দিয়েছে।

জেপি নাড্ডা আরও বলেন, নাগরিকতা সংশোধন আইন নিয়ে মমতা ব্যানার্জী আর ওনার নেতারা গোটা দেশে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। উনি আর ওনার দল গোটা রাজ্যকে ধোঁয়াশার মধ্যে রাখতে চাইছেন। জেপি নাড্ডা বলেন, এই আইন মানুষকে নাগরিকতা দেয়, কারোর নাগরিকতা কেড়ে নেয়না।

র‍্যালিতে মানুষের জনসমাগম দেখে জেপি নাড্ডা বলেন, ‘আমি পশ্চিমবঙ্গে অনেকবার এসেছি, আমি অনেক দৃশ্য দেখেছি এর আগে। কিন্তু আজকে আমি যেটা দেখছি, সেটা অভূতপূর্ব। এই দৃশ্য পশ্চিমবঙ্গে পরিবর্তনের সঙ্কেত দিচ্ছে।” জেপি নাড্ডা বলেন, মমতা ব্যানার্জীর কানে পরিবর্তনের বার্তা চলে গেছে। গোটা বাংলা মোদীজির সাথে আছে। বাংলার মানুষ সিটিজেন অ্যামেডমেন্ট বিলের পাশে আছে। দেবেও না কে? এরা প্রকৃত দেশভক্ত।

জেপি নাড্ডা বলেন, কিছু এমন শাসক এসেছিল যারা ভারতের মাটিকে জানত না। কংগ্রেসের একের পর এক ভুল করে গেছে। দেশ ভাগ ধর্মের ভিত্তিতে হয়েছিল। ১৯৫১ সালে পাকিস্তানে অ-মুসলিমদের জনসংখ্যা ২৩ শতাংশ ছিল, আর আজ ৩ শতাংশ হয়ে গেছে। এই ২০ শতাংশ মানুষ কোথায় গেছে? হঠাত কর এরা উধাও হয়ে গেলো? না এদের জোর করে ধর্মপরিবর্তন করানো হল?

Related Articles

Back to top button