Press "Enter" to skip to content

সনাতন হিন্দু ধর্মকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করছে বামপন্থীরা, সকল হিন্দু এক হও: কমল থাপা, নেপালের প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী।

শেয়ার করুন -

বিশ্ব যখন সনাতন ধর্মের মহিমা ভুলে যাচ্ছিল তখন স্বামী বিবেকানন্দ আমেরিকার শিকাগো শহরের বিশ্ব ধর্ম সম্মেলনে সকলকে হিন্দু সংস্কৃতির শক্তি দেখিয়েছিলেন। স্বামী বিবেকানন্দ পুরো বিশ্বকে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন সকল ধর্মের জননী হলো সনাতন হিন্দু ধর্ম। এখন সম্ভবত আরো একবার ধর্মকে শক্তিশালী করার মতো মহামানবের প্রয়োজন। কারণ বিশ্বে হিন্দুদের সংখ্যা গড়ে মোটামুটি থাকলেও সনাতন সংস্কৃতি মেনে চলা হিন্দুদের সংখ্যা দিন দিন কমেই চলেছে। যা নিয়ে এখন বিশ্বনেতারাও চিন্তা প্রকাশ শুরু করেছেন।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) নেপালের (Nepal) প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রীয় জনতা পার্টির নেতা কমল থাপা বিশ্বের সমস্থ হিন্দুদের উদ্যেশে বড়ো বার্তা দিয়েছেন। কমল থাপা বলেছেন বামপন্থীরা সনাতন ধর্ম ও সংস্কৃতি নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে। বামপন্থীদের এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সকল হিন্দুকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার ডাক দিয়েছেন নেপালের প্রাক্তন উপ- প্রধানমন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বৈদিক পণ্ডিত ডাঃ ডেভিড ফ্রেউলিও মন্তব্য করেছেন, যিনি পণ্ডিত ভামদেব শাস্ত্রী নামেও পরিচিত। ডঃ ডেভিড ফ্রেউলিও
বলেছেন যে ভারতের মতো নেপালেও বামপন্থী দলগুলি, মিডিয়া এবং নেপালি কংগ্রেসও শতাব্দী প্রাচীন সনাতন ধর্ম ধ্বংস করার চেষ্টা করছে।

নিজের টুইটে ফ্রলে বলেছিলেন যে বহু শতাব্দী ধরে রাজনৈতিক ও ধর্মীয় কারণে হিন্দুদের হয়রান করা হচ্ছে। ভারতের বামপন্থী মিডিয়া, একাডেমিক এবং কংগ্রেস থেকে কমিউনিস্ট রাজনৈতিক দলগুলি হিন্দুদের পথে বাধার সৃষ্টি করতে কাজ করছে। হিন্দুদের উচিত তাদের প্রেরণা সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা থাকা ও কোনো রকম ভ্রমের মধ্যে না থাকা।

ডাঃ ফ্রেবলির টুইটের জবাবে নেপালের প্রাক্তন ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী বলেন, নেপালের প্রসঙ্গেও এটি সত্য। নেপালের বাম এবং নেপালি কংগ্রেসের পাশাপাশি কিছু মূলধারার মিডিয়া, শিক্ষাবিদরা বহু শতাব্দী প্রাচীন সনাতন ধর্ম, সংস্কৃতি, নেপালি সাজসজ্জা, ঐতিহ্য এবং পরিচয় নষ্ট করার চেষ্টা করছেন। “