Press "Enter" to skip to content

কাশ্মীরি পণ্ডিতের হত্যার প্রতিবাদ নেই কেন? বাম, বুদ্ধিজীবীদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক ভিডিও কঙ্গনার

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত (Kangana Ranaut) সোশ্যাল মিডিয়ায় সন্ত্রাসীদের দ্বারা জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলায় এক কাশ্মীরি পণ্ডিত পঞ্চায়েত প্রধানকে গুলি করে হত্যা করার মামলায় সরব হন। এই ঘটনা নিয়ে দুঃখ এবং ক্ষোভ প্রকাশ করে বলিউড সেলেবদের একহাতে নেন কঙ্গনা। এর সাথে সাথে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi)) কাছে কাশ্মীরে হিন্দুদের বসবাস করার পাকা বন্দোবস্ত করে দেওয়ার জন্য আবেদন জানান।

কঙ্গনা রানাওয়াত একটি ভিডিও শেয়ার করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে কাশ্মীরে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের পুনর্বাসের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য আবেদন জানান। উনি প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছে আবেদন করে বলেন, কাশ্মীরে কাশ্মীরি পণ্ডিতদের ফেরানোর ব্যবস্থা করতে, তাদের হাতে তাদের কেড়ে নেওয়া জমি তুলে দিতে এবং কাশ্মীরে হিন্দু সাম্রাজ্যের স্থাপনা করতে।

ওই ভিডিওতে কঙ্গনা সিনেমা জগতের সাথে যুক্ত বাম বিচারধারর সেলেবদের একহাতে নেন। উনি একটি পোস্টারের মাধ্যমে বুদ্ধিজীবীদের নিশানা করে বলেন, ছোটছোট ইস্যুতে আপনারা মোমবাতি নিয়ে বের হতে পারবেন, দরকার পড়লে পাথরও ছুঁড়তে পারবেন, কিন্তু আসল জায়গায় কোনদিনও মুখ খুলবেন না।

আরেকদিকে বলিউড অভিনেতা অনুপম খের ট্যুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করে লেখেন, ‘আমি শোকার্ত আর ক্ষোভেও আছি। রাজ্যের একমাত্র কাশ্মীরি পণ্ডিত প্রধানকে গুলি করে হত্যা করা হল। ওনাকে আমার তরফ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাই। যারা বুক চাপরে কান্না করে, তাঁরা এই ঘটনা নিয়ে আর মুখ খুলছে না। সবাই এখন চুপ করে বসে আছে।” ভিডিওতে অনুপম খেরের চোখে মুখে ক্ষোভ পরিস্কার বোঝা যাচ্ছিল।

আপনাদের অবগত করিয়ে দিই যে, গতকাল প্রকাশ্য দিবালোকে জম্মু কাশ্মীরের অনন্তনাগে রাজ্যে একমাত্র কাশ্মীরি পণ্ডিত পঞ্চায়েত প্রধানকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। ওনার মৃত্যুর পর এখন গোটা রাজ্যে আর কোন কাশ্মীরি পণ্ডিত পধান নেই। জঙ্গিরা রাস্তার মাঝে ওই কাশ্মীরি পণ্ডিতকে হত্যা করেছে। ৮০ এর দশকে যেই ভয়াবহ কাণ্ড জম্মু কাশ্মীরে হয়েছিল। সেরকমই নৃশংসতা গতকাল দেখা গেছে।