নতুন খবরভারতবর্ষ

“ভুল ভাল বিজ্ঞাপন করা বন্ধ করো”- আলিয়া ভাটকে কড়া ভাষায় ধমক দিলেন কঙ্গনা রানাউত

সম্প্রতি বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাটের সর্বশেষ বিজ্ঞাপন নিয়ে জোর বিতর্ক সৃষ্টি করেছে। মান্যবরের ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন প্রসঙ্গে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, আলিয়া “চতুর বিভাজনমূলক ধারণা” ছড়াতে চাইছে। বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছে, আলিয়া মণ্ডপে বসে কনের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। বিজ্ঞাপনে অভিনেত্রী হিন্দু বিবাহ রীতি কন্যাদানের ঐতিহ্য (যেখানে বাবা তার মেয়েকে বিয়ে দেন) নিয়ে কথা বলেছেন। বিজ্ঞাপনে আলিয়া ভাটকে বলতে দেখা যাচ্ছে, কন্যাদানের পরিবর্তে কন্যামান থাকা উচিত।

এই পরিপ্রেক্ষিতে ইনস্টাগ্রামে কঙ্গনা রানাউত আলিয়া এবং মোহিকে কটাক্ষ করেছেন। কঙ্গনা রানাওয়াত অভিযোগ তুলেছেন যে এই বিজ্ঞাপনের দ্বারা হিন্দু ধর্মকে অপমান করা হয়েছে তথা হিন্দু সংস্কৃতি কে নিয়ে খিল্লি করার চেষ্টা হয়েছে। কঙ্গনা রানাওয়াত আলিয়া ভাটের এই বিজ্ঞাপন কে ব্যান করার দাবি তুলেছেন।

কঙ্গনা লিখেছেন, “আমরা প্রায়ই টেলিভিশনে একজন শহীদের বাবাকে দেখি, যখন তিনি সীমান্তে তার এক ছেলেকে হারায়, তিনি সেই অবস্থায় বলেন ‘চিন্তা করো না, আমার আরও একটি ছেলে আছে, উসকা ভি দান ম্যায় ইস ধরতি মা কো দুঙ্গা। কন্যাদান হো ইয়া পুত্রদান, সমাজ যেভাবে ধারণাটি দেখে (ইংরেজী বা উর্দুর ব্যবহার সমতুল্য শব্দের অভাব) ত্যাগ‌ই হচ্ছে মূল বিষয়।”

 

তিনি বলেছেন, রামরাজ্য প্রতিষ্ঠার সময় এসেছে। ভগবান রামচন্দ্র ত্যাগের মূর্ত প্রতীক। তিনি পিতার প্রতিজ্ঞা রক্ষায় রাজ্য ছেড়েছিলেন ও প্রজাদের জন্য স্ত্রীর অগ্নিপরীক্ষা নিয়েছিলেন। হিন্দু শাস্ত্রে ধরিত্রী এবং নারী উভয়কেই মাতা জ্ঞানে পূজা করা হয়। নারীকে আদিশক্তির অংশ মনে করা হয়। কঙ্গনা রানাউত তাঁর ক্যাপশনে লিখেছেন, “সব ব্র্যান্ডের কাছে বিনীত অনুরোধ। জিনিস বিক্রি করতে ধর্ম, সংখ্যালঘু, সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজনীতি ব্যবহার করবেন না।

Related Articles

Back to top button