নতুন খবরবিনোদন

‘বাই চাচা” জ‍্যাক ডরসির বদলি হতেই আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে উঠলেন কঙ্গনা রানাওয়াত

মুম্বাইঃ টুইটারের (twitter) সিইও বদল! জ‍্যাক ডরসিকে (jack dorsey) সরিয়ে টুইটারের দখল নিচ্ছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক পরাগ আগরওয়াল (parag agrawal)। সিইওর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন জ‍্যাক। খবর শোনা মাত্রই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত (kangana ranaut)। এই খবর শুনে দৃশ‍্যতই খুশি তিনি। প্রাক্তন সিইওকে উদ্দেশ‍্য করে তীব্র কটাক্ষ শানাতেও ছাড়েননি কঙ্গনা।

নিজের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে তিনি একটি টুইট শেয়ার করেছেন যেখানে লেখা, বম্বে আইআইটির প্রাক্তনী পরাগ আগরওয়াল টুইটারের প্রাক্তন সিইও জ‍্যাক ডরসিকে সরিয়ে নিজে নতুন সিইওর আসন দখল করতে পারেন। উচ্ছ্বসিত কঙ্গনা জ‍্যাককে ব‍্যঙ্গ করে লিখেছেন, ‘বাই চাচা জ‍্যাক’। উল্লেখ‍্য, জ‍্যাক সিইও থাকাকালীন টুইটার থেকে কার্যত ঘাড়ধাক্কা খেতে হয়েছিল কঙ্গনাকে।

সোশ‍্যাল মিডিয়ায় ঘৃণা ও হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে চিরদিনের মতো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফল বেরোনোর পরে বাংলার মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের বিরুদ্ধে নিরন্তর আক্রমণের জেরে সাসপেন্ড করা হয় তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট। বাংলায় নির্বাচনের ফল বেরোনোর আগে থেকেই মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়কে নিজের নিশানা বানিয়েছিলেন কঙ্গনা।মমতাকে ‘গুন্ডা’ ও ‘দানব’ বলেও আক্রমণ করেছিলেন অভিনেত্রী। এরপরেই সাসপেন্ড হয়ে যায় তাঁর অ্যাকাউন্ট। তাতেও অবশ‍্য দমেননি কঙ্গনা। টুইটার ছেড়ে তিনি এখন ঘাঁটি গেঁড়েছেন ইনস্টাগ্রামে। সেখানেই মন্তব‍্য, কটাক্ষ করে থাকেন আপাতত।

একা কঙ্গনা নয়, অনুপম খের ও সোনম কাপুররাও স্বাগত জানিয়েছেন পরাগকে। বর্ষীয়ান অভিনেতা লিখেছেন, ‘টুইটারের নতুন সিইও হলেন আমাদের হিন্দুস্তানি ভাই, পরাগ আগরওয়াল। যা কিছু হতে পারে!’ সোনম টূইটারের প্রাক্তন সিইও জ‍্যাকের টুইটটিই রিটুইট করে তাঁর ইস্তফার কথা জানিয়েছেন সকলকে।

Related Articles

Back to top button