Press "Enter" to skip to content

কানপুর লাভ জিহাদ: গ্রেফতার আসিফ, প্রথম বিয়ে লুকিয়ে রাখতে বিবিকে দিদি বলতো অভিযুক্ত

শেয়ার করুন -

বিগত ১০ বছর ধরে কানপুর লাভ জিহাদের ঘাঁটিতে পরিণত হয়েছে বলে বহুবার অভিযোগ উঠেছে। লাভ জিহাদি গ্যাং নানা পরিকল্পনা বানিয়ে অন্য ধর্মের মেয়েদের প্রেম জালে ফাঁসিয়ে তাদের ধর্ম পরিবর্তন করায় বলে দাবি করা হয়। সম্প্রতি কানপুর থেকে লাভ জিহাদের অভিযোগে একটা ঘটনা সমানে এসেছিল। অভিযোগ ছিল আসিফ শাহ ওরফে নাফিজ এক হিন্দু মেয়েকে লাভ জিহাদের ষড়যন্ত্রে ফাঁসিয়েছে।

এখন খবর আসছে যে আসিফ শাহ ওরফে নাফিজকে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। আসিফ ১৮ বর্ষীয় মুসকানকে প্রেম জালে ফাঁসিয়ে ইসলাম কবুল করিয়েছিল। মুসকানের মা মমতা তেওয়ারী জানিয়েছেন যে এখন অভিযুক্ত আসিফকে গ্রেফতার করে জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মুসকানের পরিবার স্থানীয় গোবিন্দ নগর পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করেছিল। যেখানে তাদের মেয়েকে ব্রেনওয়াশ করে প্রেম জালে ফাঁসানোর অভিযোগ তুলেছিল পরিবার। একইসাথে পরিবার অভিযোগ করেছিল যে তাদের মেয়েকে ইসলাম কবুল করিয়ে নিকাহ করে নেওয়া হয়েছে।

মুসকানের মা মমতা তেওয়ারী জানিয়েছেন যে আসিফ আগে থেকে বিবাহিত। শুধু এই নয়, আসিফের দুটি বাচ্চা আছে। আসিফের বয়স ৩৫ বছর অন্যদিকে মুসকানের বয়স মাত্র ১৮ বছর। আগের বিয়ের বিষয়ে আসিফ মুসকানকে মিথ্যা বলেছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। আসিফ নিজের বাড়িতে মুসকানকে নিয়ে গেছিল এবং নিজের বিবিকে দিদি বলে পরিচয় দিয়েছিল।

মমতা তেওয়ারী জানিয়েছেন, মুসকান যতক্ষন ওই বাড়িতে ছিল ততক্ষণ আসিফ নিজের বিবিকে দিদি এবং তার বিবি আসিফকে ভাইজান বলে ডাকতো। আপাতত পুলিশ আসিফকে জেলে ঢুকিয়েছে তবে মুসকানের শরীর অসুস্থ হয়ে পড়েছে। মুসকানের মা বলেছেন যে সুস্থ হতে তার সময় লাগবে কারণ এটা মুসকানের জন্য একটা বড়ো ভয়ানক বিপদ ছিল।