Press "Enter" to skip to content

পাকিস্তানে আরও একটি স্ট্রাইক করবে ভারত, এবার তেষ্টায় ছটফট করবে গোটা পাক

শেয়ার করুন -

নয়া দিল্লীঃ ৯ হাজার ১৬৭ কোটি টাকার জম্মু কাশ্মীরের প্রথম মাল্টিপার্পাস প্রকল্পের (ujh multipurpose) সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে আজ জনশুনানি হতে চলেছে। মান্ডলিতে আজ সকাল ১১ঃ০০ টা নাগাদ হওয়া এই জন শুনানিতে জেকেপিডি, দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড, সেচ আর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বিভাগের সাথে সাথে প্রশাসনিক আধিকারিক উপস্থিত থাকবেন। সংশোধিত ডিপিআরকে গত মাসে মঞ্জুরি দেওয়ার পর এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করার রাস্তা সুগম হবে।

ভদ্রবাহে কৈলাস পর্বত থেকে শুরু হওয়ার উজ্জ নদী জম্মু থেকে ১০০ কিমি দূরত্ব নির্ধারণ করার পর পাকিস্তানের নৈনকোটে গিয়ে মেশে। পিএমও কার্যালয়ের হস্তক্ষেপের পর এই প্রকল্পের ১০০ শতাংশ জল জম্মু কাশ্মীরের জন্য ব্যবহার করার কাজ করা হয়েছে। প্রকল্প সম্পূর্ণ হওয়ার পর জম্মু কাশ্মীর থেকে পাকিস্তানের দিকে যাওয়া উজ্জ নদীর (ujh river) ৯৫ শতাংশ জল আটকে দেওয়া হবে। রাবী নদীর উপর শাহপুর ক্যান্ডি প্রকল্প তৈরি হওয়ার পর, রাবী নদীর জলও পাকিস্তানের দিকে শুকিয়ে যাবে।

আর এটাই ভারতের (India) পাকিস্তানের (Pakistan) বিরুদ্ধে বড়সড় রাজনৈতিক সার্জিক্যাল স্ট্রাইক বলে মানা হচ্ছে। পাঁচটি নদীর জল পঞ্চতীর্থ মোহনাতে পড়ে উজ্জ নদীতে পড়ে জলের গতি বাড়িয়ে দেয়। আর সেখানেই এই প্রকল্পকে বাস্তবায়িত করা হবে। এই প্রকল্পের ফলে সাম্বা আর কাঠুয়া জেলার কন্ডি এলাকার ২৪ হাজার হেক্টর ভুমিতে সেচের কাজ শুরু করা যাবে। এর আগে ওই এলাকায় ১৬ হাজার হেক্টওর জমিতে সেচ করার নির্দেশ ছিল, এবার আরও আট হাজার হেক্টর জমিতে সেচ করা সম্ভব হবে। বিদ্যুৎ উৎপাদন নিয়েও কাজ করা হচ্ছে। বিভাগীয় সুত্র অনুযায়ী, ২৬ মেগাওয়াট অতিরিক্ত বিদ্যুতের উৎপাদনের জন্য নতুন যোজনা তৈরি হচ্ছে। প্রথমে ১৮৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা হত,সেটিকে বাড়িয়ে এখন ২১২ মেগাওয়াট করা হবে।

এই প্রকল্পে প্রতিবছর ৩১০ মিলিয়ন ইউনিট বিদ্যুতের উৎপাদন বেড়ে যাবে। জলস্তর এর উচ্চতম স্তর ৬০৯ মিটার নির্ণয় করা হয়েছে। ৩৪.৫০ বর্গ কিমি এলাকায় উজ্জ প্রকল্পের জলাশয় তৈরি করা হবে। আগে থেকে নির্ধারিত থাকা এই প্রকল্পে আর ৫৮৫০ কোটি টাকা খরচ বাড়বে। উজ্জ মাল্টিপার্পাস প্রকল্প ২০২০ এর মার্চ মাস থেকেই শুরু হবে বলে জানা যাচ্ছে।