Press "Enter" to skip to content

একমাসে রাজস্থানে শিশু মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ১০০! এখনো নীরব মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট

শেয়ার করুন -

রাজস্থানের কোটা হাসপাতালে শিশু মৃত্যু এখনো জারি আছে। কোটায় আরও ৯টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এই ৯টি শিশুর মৃত্যুর পর শিশু মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০০। আধিকারিকরা জানান যে, হাসপাতালে বিগত দুই দিনে আরও ৯টি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ২৩ থেকে ২৪ ডিসেম্বরের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ১০ টি শিশুর মৃত্যু ঘটেছে। কিন্তু একমাসে ১০০ শিশুর মৃত্যুর পরেও রাজ্য সরকার নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।

শিশু মৃত্যুর রিপোর্ট তৈরি করার জন্য বিজেপির কার্যকারী সভাপতি জেপি নাড্ডা সাংসদের একটি সমিতি গঠন করেছেন। বিজেপি সাংসদদের সমিতি রাজ্যের অশোক গেহলট সরকারকে তীব্র ভৎসনা করেছে। বিজেপির সংসদীয় সমিতি হাসপাতালের এই পরিস্থিতির জন্য প্রশাসনিক গাফিলতিকে দায়ী করেছে। বিজেপির সাংসদ মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট আর চিকিৎসা মন্ত্রী রঘু শর্মার কাছে দাবি করেছে যে, ওনারা যেন নিজে হাসপাতালে গিয়ে পদক্ষেপ নেন।

দৌসা থেকে বিজেপি সাংসদ জসকৌর মীনা বলেন, হাসপাতালে ইনফেকশন ছড়াচ্ছে। আরেকদিকে রাজ্যসভার সাংসদ কান্তা কদম বলেছেন যে, হাসপাতালের স্টাফ আর চিকিৎসকদের ব্যবহার খুবই খারাপ।

আরেকদিকে রাজ্যের স্বাস্থ মন্ত্রী রঘু শর্মা কোটার জেকে লোন হাসপাতালে শিশুর মৃত্যু নিয়ে বিজেপির উপর হামলা করেছে। রঘু শর্মা বলেছেন, যদি বিজেপি নিজেদের কার্যকালে হওয়া এই হাসপাতালে শিশু মৃত্যুর সংখ্যা দেখে, তাহলে তাঁদের মুখ বন্ধ হয়ে যাবে। উনি বলেন, আমরা মৃত্যুর সংখ্যা অনেক কমাতে সফল হয়েছি।

স্বাস্থ মন্ত্রী রঘু শর্মা বলেন, কোটার এই হাসপাতালের জন্য যত টাকা ধার্য হয়েছিল, সেটি রাজস্থানের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজে ডাইভার্ট করে নিজের নির্বাচনী এলাকার হাসপাতালে দিয়ে দেন। আর এই কারণে এই হাসপাতালে চিকিৎসার সুবন্দোবস্ত করা সম্ভব হয়নি। উনি জানান, আমরা খুব শীঘ্রই হাসপাতালের জন্য টাকা বরাদ্দ করে হাসপাতালের পরিস্থিতি ঠিক করে দেবো। উনি বিজেপির উপরে আক্রমণ করে বলেন, বিজেপি শিশু মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি করছে। উনি বলেন, গোটা দেশের মধ্যে সবথেকে বেশি রাজস্থানে এনআরসি আর সিএএ এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হয়েছে। আর বিজেপি সেটা থেকে নজর ঘোরাতে শিশু মৃত্যু নিয়ে রাজনীতি করছে।