নতুন খবরভারতীয় সেনা

সীমান্তে দেশ রক্ষা করতে গিয়ে বীরগতি প্রাপ্ত হয়েছিল স্বামী, এবার দেশ সেবার জন্য সেনায় যোগ দিলেন স্ত্রী

মুম্বাইঃ জম্মু কাশ্মীরে ২৯ বছর বয়সী মেজর কৌস্তভ রানে বীরগতি প্রাপ্ত করেছেন প্রায় দুই বছর হয়েছে। এবার ওনার স্ত্রী ভারতীয় সেনাতে যোগ দিয়ে দেশ সেবা করার জন্য প্রস্তুত। কনিকা রানে জীবনের সমস্ত সমস্যার সন্মুখিন হয়ে নিজের পরিবারকে সামলে অক্লান্ত পরিশ্রম করে নিজেকে দেশ সেবার জন্য তৈরি করেছেন। উনি চেন্নাইয়ে ভারতীয় সেনার অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে নিজের প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ করেছেন।

এবার তিনি ভারতীয় সেনায় যুক্ত হয়েছেন। কৌস্তভ রানে আর ওনার পরিবার মুম্বাইয়ের মীরা রোডে থাকত। আগস্ট ২০১৮ সালে তিনি আরও তিন ভারতীয় জওয়ানের সাথে বীরগতি প্রাপ্ত করেন। রাইফেল ম্যান হামির সিং (২৮), মনদীপ সিংহ (২৬) আর বিক্রমজিত সিংহ (২৫) ও দেশের জন্য বলিদান দেন। হামির সিং আর মনদীপ উত্তরাখণ্ডের বাসিন্দা, বিক্রমজিত হরিয়ানার বাসিন্দা ছিলেন। চারজনই একই দিনে বীরগতি প্রাপ্ত হন।

LOC এর পাশে গুরেজ সেক্টরে পাকিস্তান সমর্থিত জঙ্গি পাক সেনার মদতে ভারতে ঢুকছিল। শ্রীনগর থেকে ১২৫ কিমি দূর সীমান্তে পাকিস্তানি জঙ্গিদের অনুপ্রবেশকে ব্যর্থ করে এই চার জওয়ান ভারত মায়ের জন্য নিজের জীবন দিয়ে দেয়। শনিবার ২১ নভেম্বর ২০২০ মুম্বাইয়ের ডিফেন্স PRO একটি ভিডিও শেয়ার করে, জেখনে কনিকা রানে নিজের মুখেই বলেন যে এসব ওনার কাছে সহজ ছিল না।

কনিকা বলেন, আমি শুধু আমার স্বামীর সাথে দায়িত্ব অদল-বদল করেছি, কারণ আমার জায়গায় উনিও থাকলে তাই করতেন। উনি বলেন, আমি আমার স্বামীর সেই লক্ষ্য আর স্বপ্ন গুলোকে পূরণ করার জন্য ভারতীয় সেনায় এসেছি, যেটা সে পূরণ করতে পারেনি। ওনার স্বামী মেজর কৌস্তভ রানে প্রথমে গড়বাল রাইফেলসে নিযুক্ত ছিলেন, কিন্তু পরে ওনাকে ৩৬ ইন্ডিয়ান রাইফেলস এর অংশ বানিয়ে দেওয়া হয়।

 

Back to top button
Close