নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

তৃণমূলে যোগ দেওয়ার খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়তেই মুখ খুললেন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়

কলকাতাঃ একুশের বিধানসভা নির্বাচনে হারের সম্মুখীন হওয়ার পর থেকেই গেরুয়া শিবিরে একের পর এক ধস দেখা যাচ্ছে। কখনও নেতা, আবার কখনও বিধায়ক দল ছেড়ে তৃণমূলে গিয়ে নাম লেখাচ্ছেন। আর এবার তো সরাসরি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূল শিবিরে যোগ দিলেন। তৃণমূলের তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে যে, এই সপ্তাহের মধ্যেই বিজেপি শিবিরে আরও বড় ভাঙন ধরতে চলেছে।

তৃণমূলের দাবির মধ্যেই হুগলীর বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে জল্পনা ছড়িয়েছে। একটি সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে যে, লকেট কালীঘাটে গিয়েছিলেন। এমনকি তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন। সংবাদমাধ্যম দাবি করেছে যে, খুব শীঘ্রই লকেটও তৃণমূলে যোগ দিতে চলেছে।

চারিদিকে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ার পর মুখ বুজে থাকেননি স্বয়ং সাংসদও। তাঁকে নিয়ে ছড়ানো খবরকে সরাসরি ভুয়ো বলে আখ্যা দিলেন বিজেপির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। নিজের ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট করে ক্ষোভ উগরে দেন লকেট। সেখানে তিনি লেখেন, ‘আমি সচারচর ভুয়ো খবরকে পাত্তা দিইনা। কিন্তু এই খবর নিয়ে মুখ খুলতে বাধ্য হলাম। সবার আগে বলে দিই, আমি আয়ারাম গয়ারাম রাজনীতিতে বিশ্বাসী নই। আমার বিরুদ্ধে কিছু সংবাদমাধ্যম ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে। তাঁরা এভাবেই বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট করছে।”

উল্লেখ্য, বিজেপির শিবির এখন চরম আতঙ্কে ভুগছে। বঙ্গ বিজেপির নেতারা ভাবছে ‘কে যায়, কে যায়”। বাবুল সুপ্রিয় যাওয়ার আগে থেকেই বিজেপির এক বিধায়ক বেসুরো গেয়ে চলেছেন। জল্পনা উঠেছে যে, উনিও তৃণমূলে যোগ দেবেন। তবে লকেট চ্যাটার্জীকে নিয়ে খবর ছড়াতেই তোলপাড় বেঁধে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। আর এই কারণেই স্বয়ং সাংসদ ট্যুইট করে আসল সত্য সবার সামনে নিয়ে এসেছেন।

Related Articles

Back to top button