নতুন খবর

তালিবান জঙ্গি হলে ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামীরাও জঙ্গি! বিতর্কিত বয়ান মৌলানা আরশাদ মাদানির

নয়া দিল্লিঃ জমিয়ত উলামায়ে হিন্দের (Jamiat Ulama-e-Hind) সভাপতি মৌলানা আরশাদ মাদানি (Maulana Arshad Madani) তালিবানদের সন্ত্রাসবাদী মানতে নারাজ। উনি বলেন, তালিবান দাসত্বের শিকল ভেঙে স্বাধীন হয়েছে, সেই হিসেবে ওদের জঙ্গি বলা যায় না। স্বাধীনতা সবার অধিকার। ওঁরা দাসত্বের শিকল ভেঙেছে, আমাদের হাততালি দেওয়া উচিৎ। ওঁরা যদি সন্ত্রাসী হয়, তাহলে নেহরু আর গান্ধীও সন্ত্রাসী। যারা ইংরেজদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিল, তাঁরা সবাই সন্ত্রাসী। দৈনিক ভাস্করকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে মাদানি এই কথা বলেছেন।

সাক্ষাৎকারে তালিবানের অনেক ইস্যুতেই তিনি চর্চা করেন। উনি দারুল উলুমের সঙ্গে তালিবানের যুক্ত থাকার অভিযোগ নিয়ে বলেন, দেওবন্দ আর দারুল উলুমের সঙ্গে তালিবানের জন্য যোগ নেই। তালিবানদের এগুলির সঙ্গে যুক্ত করা ভুল।

আফগানিস্তানের রাস্তায় আফগান মহিলাদের বিক্ষোভ প্রদর্শন নিয়ে মাদানি বলেন, মহিলারা ক্রিম, লিপস্টিক না লাগিয়ে বুরখা পরে বিক্ষোভ দেখাতেই পারেন। এছাড়াও তালিবান শাসিত আফগানিস্তানে শরিয়া আইন এবং তালিবানের বিভিন্ন ফতোয়া বা ফরমান নিয়ে মাদানি বলেন, ‘কে বলে যে শুধুমাত্র শরিয়া আইনেই ছেলে-মেয়েদের একসঙ্গে পড়তে দেওয়া হয় না? ভারতে এমন অনেক কলেজ আর বিশ্ববিদ্যালয় আছে যেগুলি কোয়েড নয়। তাহলে তালিবানরাই কী ওই কলেজগুলি তৈরি করেছিল?”

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে জমিয়তের কার্যকারিণী বৈঠকে মৌলানা আরশাদ মাদানি মুসলিম মেয়েদের ধর্মান্তকরণ নিয়ে চিন্তা জাহির করেছিলেন। তিনি এরজন্য কোয়েড শিক্ষা ব্যবস্থাকেই দায়ী করেছিলেন। পাশাপাশি তিনি আবেদন করেছিলেন যে, দেশে আরও বেশি করে মেয়েদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা দরকার, যাতে মেয়েরা সেখানে পড়তে পারে আর মুসলিম মেয়েরা অন্য ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট না হয়।

Related Articles

Back to top button