নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গ

ভোটে জিততে মনোজ তিওয়ারিকে ভারতের অধিনায়ক বানিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী! অবাক সবাই

বয়ালঃ শেষ রাতে বাজিমাত করতে আজ নন্দীগ্রামে একাধিক জনসভা আর রোড শো করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একুশের নির্বাচনের হটস্পট নন্দীগ্রামে আগামী ১ এপ্রিল ভোট হতে চলেছে। আর আগামীকাল মঙ্গলবার ওই কেন্দ্রে নির্বাচনী প্রচার শেষ হবে। তাঁর আগে আজ সোমবার নন্দীগ্রামে ম্যারাথন প্রচারে নামলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ নন্দীগ্রামে বয়ালে একটি জনসভা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই জনসভায় ওনাকে চেনা ভঙ্গিতেই দেখা গেল। বিজেপি এবং শুভেন্দু অধিকারীকে যে তিনি এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না, আজকের জনসভা থেকে তিনি আরও স্পষ্ট করে দিলেন। আজকের বয়ালের জনসভা থেকে তিনি তৃণমূলের কজন সেলেব্রিটি প্রার্থী দাঁড়িয়েছেন সেটিরও হিসেব দিলেন।

জুন মালিয়া, রাজ চক্রবর্তী, সায়ন্তিকাদের ধরে ধরে নাম নিলেন তিনি। এর পাশাপাশি নাম নিলেন ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারিরও। তিনি বলেন, ভারতে আমাদের খেলার অধিনায়ক ছিল মনোজ তিওয়ারি, ওকে দাঁড় করিয়েছি হাওড়া থেকে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্য নিয়ে বিরোধীরা কটাক্ষ করা শুরু করে দেয়। আর বিরোধীদের কটাক্ষ করার প্রধান কারণ হল, মনোজ তিওয়ারি ভারতীয় ক্রিকেটার ছিল ঠিকই কিন্তু উনি কোনদিনও ভারতের অধিনায়ক ছিলেন না। কিন্তু ভোট পেতে মনোজ তিওয়ারিকে ভারতীয় দলের অধিনায়কও বানিয়ে দেন দিদি।

এছাড়াও আজকের বক্তব্যে তিনি বলেন, পেলেকে যে গোল দিয়েছিল, সেই বিদেশ বসুকে উলুবেড়িয়া থেকে দাঁড় করিয়েছি। এখানেও আবারও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভুল মন্তব্য করে বসেন। কারণ, ১৯৭৭ সালে ব্রাজিলের কসমস ক্লাবের হয়ে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে খেলতে নেমেছিলেন ফুটবল সম্রাট পেলে।

সেই ম্যাচের ফলাফল হয়েছিল ২-২। মোহনবাগানের হয়ে প্রথম গোল করেছিলেন শ্যাম থাপা। আর দ্বিতীয়টি আকবর। ওই ম্যাচে প্রথম একাদশে ছিলেন না ফুটবলার বিদেশ বসু। তবে দ্বিতিয়ার্ধে ওনাকে মাঠে নামানো হয়েছিল। কিন্তু সেদিন তিনি কোনও গোলই করেন নি। বিরোধীরা কটাক্ষ করে বলে, ভোট পাওয়ার জন্য নিজের দলের প্রার্থীকে পেলের সঙ্গে তুলনা শুরু করেছেন মাননীয়া।

Related Articles

Back to top button