নতুন খবরভারতবর্ষ

যোগী আদিত্যনাথ বলে গুলি চালিয়ে দাও, ছাত্রদের পিটিয়ে দাও! এগুলো লজ্জাজনক: মমতা ব্যানার্জী।

CAA আইন নিয়ে দেশজুড়ে কট্টরপন্থীরা সক্রিয় হয়ে উৎপাত শুরু করেছে। তবে কট্টরপন্থীদের কিভাবে দমন করতে হয় তাও দেখিয়ে দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। দাঙ্গাবাজদের এরেস্ট করা থেকে শুরু করে দাঙ্গা দমনে সেরা নেতৃত্ব দেখিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, এখন অবধি উত্তরপ্রদেশে ১৭ জন দাঙ্গাবাজকে গুলি করে মেরে ফেলা হয়েছে। গ্রেফতারের সংখ্যা ৮০০ পেরিয়ে গেছে। শুধু এই নয় যারা দাঙ্গা করেছে তাদের CCTV ফুটেজ ও ভিডিও গ্রাফির মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে। যারা সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করেছে তাদের বাড়িতে বাড়িতে নোটিস পাঠানো হচ্ছে।

তবে যোগী আদিত্যনাথের পদক্ষেপে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী (Mamata Banerjee) আপত্তি প্রকাশ করেছেন। মমতা ব্যানার্জী বলেছেন যোগী আদিত্যনাথ গুলি করতে বলে দেয়, কখনো ছাত্রদের মারধর করতে নির্দেশ দেয়। উনাকে CM বলা লজ্জাজনক। মমতা ব্যানার্জী বলেন, “যদি আমরা সকলে এক হয়ে যায় তাহলে কত খেলা দেখাবে বিজেপি? পুরো হিন্দুস্তান এক হয়ে গেলে বিজেপি কতো খেলা দেখাবে? কতো গুলি চালাবে? কতো জনকে জেলে ঢুকিয়ে দেবে?”

মমতা ব্যানার্জী আরো বলেন, ‘আমি কাল দেখলাম একজন গুলি খেয়ে মরে গেল কিন্তু বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী বলছে আরো গুলি মারা দরকার।সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে নেওয়া দরকার। এগুলো কোনো কথা হলো নাকি? ছাত্রদের পিটিয়ে দেয়। মমতা ব্যানার্জী CAA এর বিরুদ্ধে এক প্রতিবাদ সভা থেকে এমন মন্তব্য করেন।’

জানিয়ে দি, যোগী সরকার এখন একশন মুডে রয়েছে। যারা যারা দাঙ্গার সাথে জড়িত তাদের CCTV ক্যামেরায় চিহ্নিত করে বাড়িতে বাড়িতে নোটিস পাঠানো হচ্ছে। নোটিসে দাঙ্গাবাজদের কাউকে ১ লক্ষ ৭০ হাজার, কাউকে ৩ লক্ষ ইত্যাদি হিসেবে সরকারি ফান্ডে টাকা জমার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। কারণ তারা সেই পরিমান অর্থের সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করেছে। উত্তরপ্রদেশের মুজফরনগরে এখনও অবধি ৮০ টি দোকান সিজ করে দেওয়া হয়েছে। মমতা ব্যানার্জী তৃণমূলের এক প্রতিনিধি দলকে উত্তরপ্রদেশ পাঠিয়েছিল কিন্তু যোগী পুলিশ তাদেরকে এয়ারপোর্টেই আটকে দেয়।

Related Articles

Back to top button