নতুন খবরপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

মমতার পুলিশ আর রইল না মমতার, হয়ে গেল বিজেপির! আক্ষেপ খোদ মুখ্যমন্ত্রীর

কোচবিহারঃ বাংলার বিরোধী দলগুলো বরাবরই রাজ্য পুলিশ আর সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলে এসেছে। তাঁরা বরাবরই বলেছে যে, রাজ্য সরকার পুলিশকে দলীয় ক্যাডার হিসবে ব্যবহার করে এবং বিরোধীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো গুন্ডাগিরি করা ওদের প্রধান কাজ। কিন্তু এবার স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর মুখে রাজ্য পুলিশকে নিয়ে গুরুতর অভিযোগ করে বসলেন।

নির্বাচনের আগে পর্যন্ত রাজ্যের বিরোধী দলগুলোর স্লোগান ছিল ‘পুলিশ তুমি উর্দি ছাড়ো, তৃণমূলের ঝাণ্ডা ধরো।” কিন্তু এখন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে তাঁদের বিজেপি এজেন্ট বানিয়ে দিলেন। প্রথম তিনদফার ভোট হওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এখনও ভোট নিয়ে সন্তুষ্ট নন। এতদিন ধরে তিনি কেন্দ্রীয় বাহিনী, কমিশনকে বারবার দোষারোপ করে এসেছেন। আর এখন পুলিশ মন্ত্রী নিজেই পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন।

আজ কোচবিহারের জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘ভোট এলেই সব পুলিশ বিজেপি হয়ে যায়। আমি অনেক জায়গায় দেখেছি এটা। ছোট পুলিশরা কিছু করেনা। ওদের কোনও দোষ নেই। পুলিশেরা নেতারাই এসব করে।” মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘অনেক পুলিশই অ্যান্ডারস্ট্যান্ডিং করে বসে আছে। তৃতীয় দফার নির্বাচনের দিনে আমি আরামবাগের ওসির ভূমিকা দেখেছি।”  সভা থেকে কার্যত হুঁশিয়ারির সুরে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরাও দেখছি কে কি করছে।”

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, মুখ্যমন্ত্রী এই কথাতে একদম স্পষ্ট যে ওনার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে প্রশাসন। তাঁদের হিসেবে দুটো জিনিষ স্পষ্ট। প্রথমটি হল রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণ এখন কমিশনেরই হাতে রয়েছে। বিগত কয়েকদশকে এরকমটা হয়নি। আর দ্বিতীয়ৎ হল, দলের নিচু তলায় দলের অবস্থা একদম শোচনীয়। সেখানেও নিয়ন্ত্রণ হারিয়েছেন দলনেত্রী। আর সেই কারণেই তিনি বলছেন এজেন্ট না পেলে কন্যাশ্রী মেয়েদের এজেন্ট করুন বাড়ির ঝগড়ুটে মহিলাদের এজেন্ট করুন।

Related Articles

Back to top button